সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সুনামগঞ্জের বাংলাবাজার-নরসিংপুর-নোয়ারাই রাস্তার বেহাল দশা!

প্রস্তাবিত ‘বর্ডারহাট’ আদৌ বাস্তবায়ন হবে কি?

Untitled-1 copyতাজুল ইসলাম, দোয়ারাবাজার:
সুনামগঞ্জের বাংলাবাজার-নরসিংপুর-নোয়ারাই পাকা সড়কটি সংস্কারের অভাবে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় যান চলাচল অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বর্তমান মহাজোট সরকারের আমলে এ যাবত বড় ধরণের কোনো সংস্কারের মূখ দেখেনি এ সড়কটি। বিগত ২০০৮ সালে সড়কটি সংস্কারের কথা থাকলেও দীর্ঘ আট বছরেও তা’ বাস্তবায়ন হয়নি। ফলে রবিশস্য ও সিঙ্গেল-বোল্ডার অধ্যুষিত দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার, নরসিংপুর ও বৃহত্তর লক্ষিপুর ইউনিয়নের লক্ষাধিক মানুষ যাতায়াত ও পরিবহন ক্ষেত্রে চরম দূর্ভোগ পোহাচ্ছেন দীর্ঘকাল ধরে। এ এলাকার রবিশস্য ও সিঙ্গেল-বোল্ডারসহ উতপাদিত বিভিন্ন পণ্য সামগ্রী দেশের বিভিন্ন জেলা ও রাজধানী ঢাকাসহ বিদেশে রপ্তানি হয়ে আসছে সেই আদিকাল থেকে। এক্ষেত্রে স্থলপথে পার্শ্ববর্তী ছাতক শহর হয়ে দেশের অভ্যন্তরে পরিবহনের একমাত্র ভরসাই ওই সড়কটি। কিন্তু ছাতকের নোয়ারাই পর্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়কের বেহাল দশায় চাষি, মজুর ও ব্যবসায়ীরা সময়ের দীর্ঘ সূত্রিতায় ও অতিরিক্ত পরিবহন খরচে মারাত্মক লোকসানের শিকার হচ্ছেন।

উল্লেখ্য, প্রায় আড়াই যুগ আগে উক্ত পাকা সড়কটি নির্মিত হলেও পরবর্তীতে বড় ধরণের কোনো সংস্কার হয়নি আজও। খানা খন্দকে ভরা ভগ্নদশা রাস্তার দোহাই দিয়ে গাড়ির চালকরাও আদায় করছেন দ্বিগুণ তিনগুণ অতিরিক্ত ভাড়া। মাত্র ৫-১০ কি:মি: জায়গা অতিক্রম করতে সময়ও লাগে যথাক্রমে এক থেকে দুই ঘন্টা। ভারি যানবাহন চলাচল না করলেও বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় খানাখন্দকে ভরপুর এ সড়ক দিয়েই ঝুঁকি মাথায় নিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করছে ভুক্তভোগী হাজারো জনতা। কোনো মুমুর্ষ রোগী বা গর্ভবতী মহিলাদের জেলা শহর সুনামগঞ্জ কিংবা বিভাগীয় শহর সিলেট নগরীর বিভিন্ন প্রাইভেট ক্লিনিক বা সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যেতে সময়ের দীর্ঘ সূত্রিতা কিংবা ভগ্নদশা রাস্তার হাঁড়ভাঙ্গা ঝাঁকুনিতে অনেকেই পথিমধ্যে মৃত্যুবরণ করে থাকেন। এমনকি আজব এসব রাস্তা দিয়ে যাতায়াতকালে সুস্থ ব্যক্তিরাই অসুস্থ হয়ে পড়েন অহরহ।

অপরদিকে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত এই দোয়ারাবাজার উপজেলার ৫নং বাঁশতলা সাব-সেক্টর এবং শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের গণকবর হিসাবে খ্যাত ঐতিহাসিক হকনগরকে পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার কার্যক্রম বাস্তবায়ন পুরোদমে এগিয়ে চললেও যাতায়াত ক্ষেত্রে একমাত্র নোয়ারাই-বাঁশতলা ভায়া বাংলাবাজার সড়কটি সংস্কারে সংশ্লিষ্টদের কোনো আগ্রহ পরিলক্ষিত হচ্ছে না আজ অবধি।

উল্লেখ্য, গত বছরের মহান বিজয় দিবসে বিভিন্ন অনাড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে স্থানীয় এমপি মহোদয় জনাব মুহিবুর রহমান মানিক ও সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক মহোদয় জনাব শেখ রফিকুল ইসলাম এলাকাবাসীর দাবির প্রেক্ষিতে বহুল প্রত্যাশিত দোয়ারাবাজার সীমান্তের জিরো পয়েন্টে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত ঐতিহাসিক বাঁশতলা-হকনগর শহীদ মিনার এলাকায় ‘বর্ডার হাট’ স্থাপনের আশ্বাস দেন। এলাকাবাসীর বহুল প্রত্যাশিত মহত এ দাবিটি বাস্তবায়ন করতে সর্বাগ্রে নোয়ারাই-বাঁশতলা সড়কটি অবশ্যই পূর্ণতা লাভ করবে বলে এলাকাবাসী বুকভরা আশা নিয়ে সোনালি স্বপ্ন দেখেছিলেন। কিন্তু দূর্ভাগ্য ! সে স্বপ্ন আজ শুধু স্বপ্নই রয়ে গেল। ভবিষ্যতে সে স্বপ্ন কখনো কি বাস্তবতার মুখ দেখতে পারবে কি না এ হতাশায় চরম বিহ্বলতায় ভূগছেন দোয়ারাবাজারবাসী।

এমতাবস্থায় জনস্বার্থে স্থানীয় এমপি মহোদয়সহ সরকার ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ভগ্নদশা সড়কটি সংস্কারসহ নির্ধারিত স্থানে প্রস্তাবিত ‘বর্ডারহাট’ স্থাপনে জরুরি প্রদক্ষেপ গ্রহনের জোর দাবি জানান সংশ্লিষ্ট এলাকাবাসী।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: