সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ৫৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

‘আমি এখন কী নিয়ে বাঁচব?

photo-1466348368নিউজ ডেস্ক : ‘আমি এখন কী নিয়ে বাঁচব? দুইটি মেয়ে আছে আমার। তাদের কীভাবে মানুষ করব?’

দুই মেয়ে তোবা আর সামিয়াকে নিয়ে কথা বলছিলেন শাহানা বেগম। শাহানার স্বামী নজরুল ইসলাম (৪৫) সৌদি আরবের মক্কায় এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন। স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার রাতে নগরীর তায়েফের কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নজরুলের সঙ্গে নিহত হন আরো দুই বাংলাদেশি নাগরিক। এঁরা হলেন , সজীব মিয়া ও শাহাজাহান। তাঁরা নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার বাসিন্দা। মক্কা থেকে গাড়িতে করে নিজেদের কর্মস্থল আবা শহরে যাওয়ার পথে গাড়ির সামনে চাকা ফেটে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত নজরুল ইসলাম ফরিদপুরের সালথা উপজেলার ভাওয়াল ইউনিয়নের পুরুরা-সাধুপাড়ার বাসিন্দা। নিহতের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় শোকে নির্বাক হয়ে আছেন স্বজনরা। থেমে থেমে শোনা যায় কান্নার আওয়াজ। সবার অপেক্ষা এখন নজরুলের মৃতদেহের জন্য।

গতকাল শনিবার নজরুলের মৃত্যুর খবর শোনার পর আশপাশের এলাকার লোকজনকে নিহতের বাড়িতে ভিড় জমাতে দেখা যায়।

নিহতের স্ত্রী মোসাম্মাৎ শাহানা বেগম (৩৪) বলেন, ‘আমার দুটি মেয়ে। এদের দিকে দেখে সরকার যদি আমাদের সাহায্য করে।’

নিহত নজরুলের ভাই মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার ভাইকে আমরা আর ফিরে পাবো না। আমরা চাই সরকার যেন আমার ভায়ের লাশটি দেশে এনে দেওয়ার সুযোগ করে দেন। যাতে আমরা আমার ভাইকে দেশের মাটিতে অন্তত কবর দিতে পারি।‘

ফুটেজের প্রথমে নিহতের স্ত্রী মোসাম্মাৎ শাহানা বেগম দ্বিতীয়তে নিহতের পিতা সোহরাব মোল্লা শেষে নিহতের ভাই মো. শফিকুল ইসলামের বক্তব্য রয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: