সর্বশেষ আপডেট : ৭ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্রীজ মেরামতের কারণে বিকল্প পথে যান চলাচল : সাড়ে ৩ শত কোটি টাকার ক্ষতি

ee48f45b-8d99-4ca9-9ef1-5cc2daa0b1e4এস, এম মেহেদী হাসান : ঢাকা-সিলেট আঞ্চলিক মহাসড়কের কুশিয়ারা নদীর উপর নির্মিত শেরপুর সেতু মেরামতের জন্য ১৪ দিনের জন্য বন্ধ ঘোষনা হয়। ১০ জুন শুক্রবার থেকে সিলেটের সকল যানবাহন বিকল্প হিসেবে ফেঞ্চুগঞ্জ-রাজনগর-মৌলভীবাজার-শ্রীমঙ্গল-শায়েস্তাগঞ্জ সড়ক উপ-আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে যাতায়াত করছে।

৮০০ সিএফটি পাথর বোঝাই ভারী ট্রাক ৮০ কিলোমিটার উপ-আঞ্চলিক মহাসড়কের উপর দিয়ে চলাচল করছে। ভারী যান চলাচলে কারণে রাস্তার অনেক জায়গায় উচু-নিচু ঢেউয়ের মতো হয়ে গেছে। অনেক জায়গায় ভেঙ্গে বিশাল বিশাল গর্ত সৃষ্টি হচ্ছে। প্রতি দিন পাথর বোঝাই ট্রাক রাস্তার এক পাশে দেবে যাচ্ছে। রাস্তার যেমন তির পরিমাণ বাড়ছে, তেমনি সাধারণ মানুষের ভুগান্তিও বৃদ্ধি পাচ্ছে। যা শুধু ৮০ কিলো মিটার রাস্তা মেরামতে প্রায় সাড়ে ৩শ কোটি টাকার দিতে হবে।

হঠাৎ করে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক বন্ধ হওয়ায় ভারী যানবাহন উপ-আঞ্চলিক মহা সড়কের দিয়ে যাতায়াতের ফলে মৌলভীবাজার জেলা শহরে মাত্রাতিরিক্ত যানজট বেড়েছে। যন্ত্রনাদায়ক হয়ে উঠেছে মানুষের জীবন। হরণের শব্দে রাস্তার আশপাশের বাসা-বাড়ি, দোকান-পাঠ, স্কুল-কলেজ অফিসগুলোতে বিরূপ প্রভাব পড়ছে। পথচারিরা খুব আতংক নিয়ে রাস্তায় চলাচল করছেন। এছাড়া প্রতিনিয়তই ঘটছে দূর্ঘটনা।
মৌলভীবাজার সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী উৎপল সামন্ত বর্তমানকে জানান, ৩০-৪০ টন ওজনের পণ্যবাহী ভারী যানবাহন চলাচলের জন্য এ রাস্তা তৈরী হয়নি। এ সব ভারী যানবাহন চলাচল করায় প্রতিদিনই তির পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। তিনি জেলা প্রশাসক বরাবরে ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধের বিষয়ে লিখিত ভাবে জানিয়েছেন। কি পরিমান তি হতে পারে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বর্তমানকে বলেন, এ ধরনের রাস্তা প্রতি কিলোমিটার নতুন ভাবে নির্মান করতে গেলে ১০ থেকে ১২ কোটি টাকা প্রয়োজন হবে। স্থানে স্থানে ভাঙ্গা মেরামত করলে ৩ থেকে ৪ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এ ছাড়া পুরো মেরামত করলে ৭ থেকে ৮ কোটি টাকা ব্যয় হবে।

এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসান বললেন, এতো ভাল রাস্থা নষ্ট হচ্ছে দেখে আমারও কষ্ট হচ্ছে, রক্তরণ হচ্ছে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি লিখেছি।

প্রকৌশলী মনসুরুজ্জামান বলেন, এটা খুবই উদ্বেগের বিষয়। ২৪ জুন শেরপুর সেতুর মেরামত কাজ শেষ হলেই ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক চালু হবে। কিন্তু যে ত তৈরী করে দিয়েছে তা কি সারাবে। অনেকের মতো আমিও সন্দিহান। কবে স্বাভাবিক হয়ে আগের অবস্থায় ফিরে আসবে শহরের সড়কগুলো। আর একবার ত হলে তা বারবার আক্রান্ত হবেই। অতি দ্র্রুত রাস্তার পূর্ণাঙ্গ মেরামতের দাবী করেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: