সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বড়লেখার একজনসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ১৩ শিক্ষককে জঙ্গিদের হুমকি

treনিজস্ব প্রতিবেদক::
নারায়ণগঞ্জের শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তসহ দেশের বিভিন্ন স্থানের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ১৩ জন শিক্ষক জঙ্গি সংগঠনের হুমকি পাওয়ার পর নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। একটি গোয়েন্দা সংস্থা সরকারকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছে যে, জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিম (এবিটি) ও তাদের সহযোগী সংগঠন ১৩ জন শিক্ষককে হত্যার হুমকি দিয়েছে। এই শিক্ষকদের বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটুক্তি করার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

১১ জেলার ১২ শিক্ষকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তাঁরা জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত তাঁদের কোনো ধরণের নিরাপত্তা দেওয়া হয়নি। অনেকেই ভয়ে পালিয়ে আছেন। বেশিরভাগ শিক্ষকই জানিয়েছেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ ঠিক নয়। মূলত বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটি ও নির্বাচন নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে এ অভিযোগ আনা হয়েছে। এঁদের কেউ কেউ অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় স্বপদে বহাল হয়েছেন, কেউ কেউ সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আবুল কালাম আজাদ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মোজাম্মেল হক খানকে একটি গোয়েন্দা সংস্থার পক্ষ থেকে চিঠি দিয়ে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা গত ২ জুন এ সংক্রান্ত একটি চিঠি পেয়েছেন। গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিবেদনে বলা হয়, বিগত দিনে বিভিন্ন সময়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের যেসব শিক্ষক ইসলাম ও ধর্মীয় বিষয়ে কটুক্তি করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে, তাঁদের একে একে হত্যা করার পরিকল্পনা নিয়েছে জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিম।

সরকারের পক্ষ থেকে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কেনো তাঁদের নামের তালিকা করা হলো, তাঁদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সঠিক কি না, সেটা তদন্ত করা হচ্ছে।

তালিকার ১ নম্বরে রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত। তাঁকে অবশ্য নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে। এর আগে স্থানীয় সাংসদ সেলিম ওসমানের উপস্থিতিতে তাঁকে মারধর ও কান ধরে ওঠবস করানো হয়। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি তাঁকে সাময়িক বরখাস্তও করে। এ নিয়ে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। অভিযোগের সত্যতা না পাওয়ায় শিক্ষা মন্ত্রণালয় তাঁকে পুনর্বহাল করে।

জঙ্গিগোষ্ঠীর তালিকায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা, শরীয়তপুরের জাজিরা, বাগেরহাটের চিতলমারী, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ, জামালপুরের সদর উপজেলা, কুমিল্লার লাকসাম, মনোহরগঞ্জ, চান্দিনা, যশোরের অভয়নগর ও মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার একজনসহ ১৩ জন শিক্ষকের নাম আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: