সর্বশেষ আপডেট : ৩৫ মিনিট ৩৮ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

তাহিরপুর সীমান্তে ভুয়া সাংবাদিক মুরাদকে একমাসের কারাদন্ড

downloadআল-হেলাল :: সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে এম.ডি মুরাদ (২৫) নামে এক ভুয়া সাংবাদিককে এক মাসের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো.ইকবাল হোসেন এর আদালত উক্ত দন্ডাদেশ দেন। দন্ডপ্রাপ্ত মুরাদ উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের কুড়েরপাড়া গ্রামের চাঞ্চল্যকর জোড়াখুন, অবৈধ অস্ত্রমামলাসহ প্রায় ডজনখানেক মামলার আদালতে বিচারাধীন আসামি শাহানুর মিয়ার ছেলে। তাহিরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ দন্ডাদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়,উপজেলার চারাগাঁও শুল্কবন্দর সংলগ্ন পাহাড়ী ছড়া থেকে স্থানীয় অসহায় নারী-পুরুষ ঢলে আসা বুল্ডার পাথর-সিঙ্গেল-বালু উত্তোলনকালে বৃহস্পতিবার সকালে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করেন দন্ডপ্রাপ্ত মুরাদ। পরে উত্তেজিত জনতা গণধুলাই দিয়ে পুলিশ-বিজিবির সহযোগীতায় টাঙ্গুয়ার হাওরে দায়িত্বে থাকা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর কাছে সোপর্দ করেন।
ভোক্তভুগী এলাকাবাসী জানিয়েছেন, মোহনা টিভি, একুশে টিভিসহ বিভিন্ন শীর্ষস্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক সংবাদ মাধ্যমের পরিচয়ে সীমান্ত এলাকায় বিভিন্ন সাংবাদিক ও বিজিবি’র নাম ভাঙিয়ে বীরদর্পে চাঁদা আদায় করে আসছিলেন মুরাদ। সাধারণ মানুষও ঝামেলা এড়াতে প্রতিনিয়ত চাঁদা দিত মুরাদকে

সূত্র আরও জানিয়েছে, ইতিপূর্বে বিজিবি’র নাম ভাঙিয়ে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে সুনামগঞ্জ বিজিবি ব্যাটালিয়ন-৮ এর তৎকালীন কমান্ডিং অফিসারের (অধিনায়ক) নির্দেশে মুরাদকে ধরতে একাধিকবার অভিযান পরিচালনা করে স্থানীয় বিজিবি। দীর্ঘদিন গাঁ ঢাকা দেয়ায় অভিযান সফল হয়নি। সর্বশেষ শেষধাপের ইউপি নির্বাচনে শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ ভোটকেন্দ্রে নিজেকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে পচন্দের প্রার্থীর স্বপক্ষে প্রভাব বিস্তার করতে চাইলে টাস্কফোর্স আসামাত্র চম্পট দেয় সাংবাদিক পরিচয়ধারী মুরাদ।
এদিকে কে এই সাংবাদিক বিষয়টি জানতে তাৎক্ষণিক তাহিরপুর ও সুনামগঞ্জ প্রেসকাবের দায়িত্বশীলদের সাথে কথা হয় এ প্রতিবেদকের। তাঁরা জানান, মুরাদ নামে কোনো সাংবাদিক আছে বলে তাদের জানা নেই। তবে তাহিরপুর উপজেলায় কর্মরত এক সাংবাদিক জানিয়েছেন, কেবলমাত্র সীমান্ত এলাকায় গেলেই মুরাদ নামের এক বড় সাংবাদিকের নাম শুনতে পাওয়া যায়। এলাকায় জনশ্রতি আছে তার মোহনা টিভি, একুশে টিভি নামের দুটি টিভি চ্যানেলও রয়েছে।

অনুসন্ধানে জানা যায়, ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে পড়ুয়া মুরাদ সম্প্রতি স্থানীয় পাটলাই নদীতে বেপরোয়া চাঁদাবাজি, চুরি-চিনতাই করে আধিপত্য বিস্তার তৈরী করেন মুরাদ নামের এই ভুয়া সাংবাদিক। চাঁদার দাবিতে একাধিকবার কয়লা-চুনাপাথর বোঝাই নৌকা আটক করে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হন তিনি। এলাকায় হয়ে উঠেন এক মূর্তিমান আতংক। এক পর্যায়ে জেলায় কর্মরত একাধিক হলুদ সাংবাদিকদের সোর্স হিসেবে যাত্রা শুরু করে তাদের মদদে পুরো সীমান্তে চাঁদাবাজির নেটওয়ার্ক তৈরী করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ভুয়া সাংবাদিক মুরাদ।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: