সর্বশেষ আপডেট : ২৪ মিনিট ২৩ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

এই হোটেলে ইফতার ফ্রি

145197_1নিউজ ডেস্ক: রাজধানী ঢাকার একটি হোটেল গত ১০ বছর ধরে পুরো রমজান মাস জুড়ে বিনামূল্যে ইফতার করাচ্ছে। ফেসবুকে ওই হোটেলের ইফতারের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

আরিফুর রহমান নামের একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী ১৩ জুন ভিডিওটি পোস্ট করার পর এখন পর্যন্ত ১ লাখ ২২ হাজার বারের বেশি সেটি দেখা হয়েছে।

তার ফেসবুক স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো:

ইফতারে ‘ভ্যাবাচ্যাকা’ খেলাম!
আমার এক বন্ধু তার বাসায় মেহমানদের জন্যে ইফতারের আয়োজন করবে বিধায় আমাকে নিয়ে গেলো হোটেল সোনারগাঁওয়ে।

সেখানে এক পিস ডিম-আলু বড়ার দাম ২০০ টাকা দেখে আমাদের তো চক্ষু ছানাবড়া! তাই সেখান থেকে আমরা একেবারে ছিটকে বেরিয়ে এলাম! বন্ধুর কাছ থেকে বিদায় নিয়ে আমি গেলাম গ্রিন রোড, সেখানকার কাজ শেষ করতে করতেই ইফতারের সময় হয়ে গেলো।

কোথাও বসে ইফতার করতে হবে, হাতে সময়ও বেশি নেই। হাতের কাছের জিঞ্জিরা হোটেল ছিল, ঢুকে গেলাম। সবার সামনে সুন্দর ইফতারের প্লেট সাজানো, মুড়ি, ছোলা, জিলাপি, খেজুর, পেঁয়াজু, আলুর চপ, বেগুনী ইত্যাদি। আমার একার জন্যে যথেষ্ট।

আমি দোকানের একজনকে বললাম এখানে বসে ইফতার করা যাবে, তিনি হাসিমুখে বললেন; বসেন। আমি অন্য সবার সাথে বসে গেলাম। একজনকে ডেকে বললাম ভাই একটা ঠাণ্ডা পানি দেন। উনি রেফ্রিজারেটর থেকে একটা ঠাণ্ডা পানি বের করে বললেন, পানির দামটা দিয়ে দেন! আমি একটু অবাক হয়ে বললাম, একবারে দেই! তিনি বললেন না শুধু পানির দাম দেন, ইফতার তো ফ্রী! আমি রীতিমত ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে বসে থাকলাম কিছুক্ষণ! সম্বিৎ ফিরে পেয়ে সামনে বসা সবার দিকে একপলক নজর দিলাম! দেখলাম দোকানের বাইরেও টেবিল পেতে থরে থরে ইফতারের প্লেট সাজানো।

একজন সাদা পাঞ্জাবি পরা সাদা শ্মশ্রুমণ্ডিত বৃদ্ধ লোক তার কর্মচারীদের বলছেন, ইফতার ফ্রী এইটা না বললে লোকজন বুঝব না!

আমার ভ্যাবাচ্যাকা ভাব জারি থাকলো, সবার অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে আজান হলো!

আজকের ইফতার আমার কাছে অন্যরকম লাগছিল! নাথিং স্পেশাল, ওই তো ডাল আর পেঁয়াজ দিয়ে বানানো পেঁয়াজু, কিন্তু কেন জানি মনে হল একটু বেশিই স্বাদ!

পরিপূর্ণ তৃপ্তি সহকারে খেয়ে ক্যাশে যেয়ে বললাম ভাই প্রতিদিন কি ফ্রি ইফতার দেন? তিনি উত্তরে বললেন প্রতিদিনই দেন এবং বিগত ১০ বছর যাবত এটা চলছে। শুধু তাই না, এই পুরো রমজান মাস জিঞ্জিরা হোটেলের সকল খাবারের বিকিকিনি বন্ধ থাকবে। ইফতার বানানো ছাড়া কারিগরদের আর কোন কাজ নেই, ছুটি; পুরো রমজান মাস!

পরে জানতে পারলাম ক্যাশে বসা লোকটি এই দোকানের মালিক হাজী সালেহ আহমেদের ছেলে মোহাম্মাদ রফিকুল ইসলাম। রফিক ভাইয়ের হাতে জোড় করে ১০০ টাকা গুঁজে দিয়ে বললাম, আগামী দিনের ইফতার বানাতে একটু হলেও কাজে লাগবে, তিনি হেসে গ্রহণ করলেন। আমি আবার পথে নামলাম, ততক্ষণে টিপ টিপ বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে।

ভিডিওটি দেখতে ক্লিক করতে পারেন এই লিঙ্কে: https://www.facebook.com/1044889621/videos/10208614964185276/

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: