সর্বশেষ আপডেট : ৫০ মিনিট ৩৪ সেকেন্ড আগে
বুধবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দিরাইয়ে অপহরণ মামলার আসামী সাজুকে ছেড়ে দেয়ায় আদালতে মামলা দায়ের

2. daily sylhet bochar newsসুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
কাজের মেয়েকে অপহরনের ঘটনায় জড়িত আসামীকে আটক করার পরও থানা থেকে ছেড়ে দেয়ায় আদালতে নারী ও শিশু নিযাতণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মঙ্গলবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে ১০৯/২০১৬ নং পিটিশন মামলাটি দায়ের করেছেন দিরাই পৌরসভার আনোয়ারপুর উত্তরহাটি গ্রামের মৃত আদম আলীর পুত্র আব্দুল জলিল। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩) এর ৬ (১) ৩০ ধারায় দায়েরকৃত মামলায় দিরাই পৌরসভার আনোয়ারপুর নয়াহাটি গ্রামের মৃত নানু মিয়ার পুত্র সাজু মিয়া ও সেলিম মিয়া নামের ২ সহোদরকে আসামী করা হয়েছে।

মামলার বিবরনে প্রকাশ ২০১৫ইং সনের ১৬ জুন মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় রিক্সাচালক আব্দুল জলিল এর মেয়েকে সাজু মিয়া তার দিরাই কলেজ রোডস্থ বাসায় কাজের মেয়ে হিসেবে নিয়ে আসে। এখানে কিছুদিন কাজ করানোর পর সে ঐ মেয়েটিকে তার বোন রাজিয়া বেগম ও ভগ্নিপতি জাহাঙ্গীর আলমের ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের আলীনগর এলাকার বাসায় পাটিয়ে দেয়। ১৮ জুলাই শনিবার সকাল ১০টায় ইদুল ফিতর পালন উপলক্ষ্যে পিতা তার কন্যাটিকে নিজের বাড়িতে আনার জন্য সাজুর বাসায় গেলে সাজু ও তার ভাই মেয়েটিকে বোনজামাইর বাসা হতে এনে পিতার কাছে সমজিয়ে দেবার প্রতিশ্রুতি দেয়।

কিন্তু ইদুল ফিতরের সময় ঐ দুই সহোদর মেয়েটিকে তার পিতার কাছে তুলে দেয়নি। পরে অসহায় পিতা বিভিন্ন মাধ্যমে ঢাকার কেরানীগঞ্জ থানার আলীনগর এলাকা ও সাজু সেলিমের বাসা বাড়িতে অনেকবার খুজাখুজি করেও মেয়েটিকে পাননি। ফলে অনন্যোপায় হয়ে অসহায় পিতা তার কনে উদ্ধারের জন্য দিরাই থানায় গত ১৮ অক্টোবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ অভিযোগটিকে ১৪৪নং ক্রমিকে এন্ট্রি করত: সাজুকে গ্রেফতার করে। কিন্তু দিরাই থানা ওসি গ্রেফতারকৃত সাজুকে রাজনৈতিক তদবীরের আশ্রয়ে ও উৎকোচের বিনিময়ে ছেড়ে দেন। ধৃত আসামী ছেড়ে দেয়ার পাশাপাশি ওসি গরীব রিক্সাচালকের দায়েরকৃত অভিযোগটি এফআইআর করা থেকে বিরত থাকেন।

দিরাই থানা ওসি আনিসুর রহমানের মুখের কথায় আশায় আশায় থেকে দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পরও কনের কোন সন্ধান না পাওয়ায় পরিস্থিতির কারনে বাধ্য হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন অসহায় পিতা। বিজ্ঞ বিচারক মামলাটি আমলে নিয়ে ভিকটিম উদ্ধারসহ তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিরাই থানা ওসিকে নির্দেশ দেন। বাদীপক্ষে আদালতে মামলাটি পরিচালনা করেন সুনামগঞ্জ জজকোর্টের সাবেক পিপি মোঃ শফিকুল আলম এডভোকেট।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: