সর্বশেষ আপডেট : ৩ মিনিট ৫৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে সংবাদ সম্মেলন: গুলিভর্তি ব্যাগের উৎস যুক্তরাজ্যের কাছে জানতে চাইবে বাংলাদেশ

Untitled-1 copyস্টাফ রিপোর্টার::
দেশের বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তা নিয়ে বিদেশ থেকে প্রশ্ন তোলা হলেও যুক্তরাজ্যের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে কিভাবে শটগানের গুলি নিয়ে যাত্রিবিমানে ওঠলো তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সিলেট কাস্টমসের কর্মকর্তারা।

সোমবার সংবাদ সম্মেলন করে এমন প্রশ্ন রাখেন সিলেট ভ্যাট কাস্টমস কমিশনারেট এর কমিশনার ড. নুরুজ্জামান। তিনি বলেন, এ বিষয়টি এনবিআরের পক্ষ থেকে ব্রিটিশ হাইকমিশনারকে বিভিন্ন মাধ্যমে জানানো হয়েছে। এখন আনুষ্ঠানিকভাবে সরকারের পক্ষ থেকে ব্রিটিশ সরকারকে জানানো হবে এবং কী করে গুলি ভর্তি ব্যাগ হিথ্রো বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বলয় পেরিয়ে সিলেটে আসলো তা জানতে চাওয়া হবে।

গত ৪ জুন সকালে সিলেট এমএজি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ১৫০ রাউন্ড শর্টগানের গুলিসহ এক যুক্তরাজ্য প্রবাসী আবদুস সবুরকে আটক করেন কাস্টমস কর্মকর্তারা। যুক্তরাজ্যের হিথ্রো বিমানবন্দর থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে সিলেট ফিরেন তিনি। যুক্তরাজ্য থেকেই লাগেজ ভর্তি করে গুলিগুলো নিয়ে আসেন ওই প্রবাসী। তিনি সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার মাথিউরা গ্রামের আবদুস শহীদের ছেলে। এই গুলি উদ্ধারের ঘটনার সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে সোমবার দুপুরে সিলেট এম এ জি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।

ড. নুরুজ্জামান জানান, গুলি উদ্ধারের ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। এই মামলায় যাত্রী আবদুস সবুর বর্তমানে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন।
সংবাদ সম্মেলনে কাস্টমস সিলেটের কমিশনার ড. একে নুরুজ্জামান সাম্প্রতিককালে সিলেটে কাস্টমস এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেটের সদস্যদের সক্রিয়তায় সোনা, হিরোইন, কারনেট সুবিধায় শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আনা বিলাশবহুল গাড়িসহ বিভিন্ন অবৈধ দ্রব্য আটকের সফলতা তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, কাস্টমস সিলেটের অতিরিক্ত কমিশনার রাশেদুল ইসলাম, যুগ্ম কমিশনার নিয়ামূল ইসলাম, সিলেট ওসমানী আন্তজার্তিক বিমানবন্দনের সহকারি কমিশনার খায়রুর বাশার, সিলেট শুল্ক গোয়েন্দা অফিসের সহকারি পরিচালক প্রভাত কুমার সিংহ।

এর আগে চলতি বছরের ২১ ফেব্রুয়ারি বিকেলে বাংলাদেশ বিমানের এক বর্হিগামীযাত্রীর কাছ থেকে ৭৩৬ কার্টুন বাংলাদেশী বেনসন এন্ড হেজেস ও ডারবি ব্রান্ডের সিগারেট আটক করা হয়।

১৭ মার্চ জেদ্দা থেকে আসা একটি ফ্লাইটে গোলাপগঞ্জের আরজুমন্দ আলী নামের এক যাত্রীর কাছ থেকে ৫টি স্বর্ণবার উদ্ধার করা হয়। যেগুলোর একত্রে ওজন ৫৮০ গ্রাম। পরে বিষয়টি মামলার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করা হয়। অভিযুক্ত যাত্রীকে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

২৪ এপ্রিল সকালে লন্ডন থেকে আগত যাত্রী মো. লোকমান হোসেনের কাছ থেকে ৪৩২ গ্রাম স্বর্ণ আটক করা হয়। পরে এটি মামলার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হয়। লোকমানের উপর ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা হয় বিচারাদেশে।

৯ মার্চ পাকিস্তান হতে আসা ৩৮টি কাপড়ের ব্যাগ পরীক্ষা করে ৭ দশসিমক ৯৫ কেজি হিরোইন পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে দায়ের করা মামলা এখনও বিচারাধীন আছে।

২২ মার্চ অনুরুপভাবে পাকিস্তান থেকে আসা একটি পার্সেলে বিশেষভাবে তৈরি ১০টি লেডিস ব্যাগে ২.০৮ কেজি হিরোইন পাওয়া যায়। এ ব্যাপারে একটি মামলা এখনো বিচারাধীন রয়েছে।

৬ জুন হবিগঞ্জ থেকে আবগারি ও ভ্যাট বিভাগের কর্মকর্তারা কার্নেট সুবিধায় নিয়ে আসা শুল্ক ফঁকি দিয়ে চালানো একটি গাড়ি আটক করেন। গাড়িটি হচ্ছে ২০০৭ সালের মিতসুবিসি শোগার্ন মডেলের জিপ।

১০ এপ্রিল সিলেট নগরীর আম্বরখানাস্থ বিএম টাওয়ারের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেকের মালিকানাধীন দুই কোটি টাকা মূল্যের ‘মার্সিডিজ বেঞ্জ’ গাড়িটি (ঢাকা-৬১৪/ও) আটক করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের টিম।

এছাড়াও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ২০১৪ সালের জানুয়ারি হতে ২০১৫ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত সিলেট এয়ারপোর্ট ও এয়ারফ্রেইট বিভাগ কর্তৃক ১ হাজার ৩শ’ ৩৩ কার্টন সিগারেট, প্রায় ১৯ কেজি স্বর্ণ এবং ১২২ বোতল মদ আটক করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: