সর্বশেষ আপডেট : ৬ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছাতকে কৃষি বিভাগে ৭৭টি প্রকল্প প্রদর্শনীর নামে পুকুর চুরি

durnity-logo_14766ডেইলি সিলেট ডেস্ক:
সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার কৃষি স¤প্রসারণ বিভাগে ৭৭টি প্রকল্প প্রদর্শনীর নামে প্রায় ৬ লাখ টাকার সিংহভাগই আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে শস্যের নিবিড়তা বৃদ্ধিকরণের নামে এ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে উঠেছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে কৃষি বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ক্ষতিগ্রস্ত এক কৃষকের লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে গত সোমবার ছাতক কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয়ে তদন্ত কাজ শুরু করেন কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক।

জানা যায়, সিলেট অঞ্চলের শস্যের নিবিড়তা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের আওতায় ছাতক উপজেলা কৃষি কার্যালয়ের আওতাধীন গত রবি মৌসুমে অনাবাদি জমিতে ফসল উৎপাদনে সরকার ৭৭টি প্রকল্পের প্রদর্শনীতে বরাদ্দ দেয়। অনাবাদি জমিতে ধান প্রদর্শনীতে ৯ হাজার ৮শ টাকা করে ২৯টি প্রকল্পে ২ লাখ ৮৪ হাজার ২শ টাকা, ঘাই প্রদর্শনীতে ৫ হাজার ৪শ টাকা করে ৭টি প্রকল্পে ৩৭ হাজার ৮শ টাকা, ডাল প্রদর্শনীতে ৬ হাজার ৩শ টাকা করে ৬টি প্রকল্পে ৩৭ হাজার ৮শ টাকা, মসলা প্রদর্শনীতে ১৭ হাজার ৮শ টাকা করে ৩টি প্রকল্পে ৫৩ হাজার ৪শ টাকা, গম প্রদর্শনীতে ৬ হাজার ৮শ টাকা করে ৭টি প্রকল্পে ৪৭ হাজার ৬শ টাকা, ভুট্টা প্রদর্শনীতে ১টি র্প্রকল্পে ৭ হাজার টাকা, কিপার সবজি প্রদর্শনীতে ৪ হাজার ৮শ টাকা করে ৯টি প্রকল্পে ৪৩ হাজার ২শ টাকা, নন-কিপার সবজি প্রদর্শনীতে ৪ হাজার ৩শ টাকা করে ৮টি প্রকল্পে ৩৪ হাজার ৪শ টাকা, এফওয়াইএম প্রদর্শনীতে ৪ হাজার ৪শ টাকা করে ৩টি প্রকল্পে ১৩ হাজার ২শ টাকা ও ক¤েপাষ্ট প্রর্শনীতে ৪ হাজার ৪শ টাকা করে ৪টি প্রকল্পে ১৭ হাজার ৬শ টাকাসহ মোট ৭৭টি প্রকল্পের প্রদর্শনীর ৫ লাখ ৭৬ হাজার ২শ টাকার বেশিরভাগই আত্মসাত করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এসব প্রকল্পে উপজেলার বিভিন্ন কৃষকের নামে ভূঁয়া বিলÑভাউচার ও জাল স্বাক্ষর দিয়ে টাকা লুটপাট করা হয়।গত ৭ এপ্রিল কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক বরাবরে ছাতকের গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের বদিরগাঁও গ্রামের ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মতিউর রহমান ছাদিক ছাতক কৃষি অফিসের দায়িত্বরত কর্মকর্তা কর্তৃক শস্য নিবিড়করণ প্রকল্পসহ অন্যান্য প্রকল্পের প্রদর্শনীর টাকা আত্মসাতের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। এর প্রেক্ষিতে গত সোমবার সিলেট অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক কৃষ্ণ চন্দ্র হোড় ছাতক কৃষি কার্যালয়ে গিয়ে তদন্ত করেন। তদন্তকালে অভিযোগকারি কৃষক ছাদিকের স্বাক্ষর জাল করে তার নামে ভুট্টা প্রদর্শনী প্রকল্পের ৭ হাজার টাকা উত্তোলনের প্রমাণ পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে ছাতক কৃষি স¤প্রসারণ কর্মকর্তা জগলুল হায়দার জানান, ৭৭টি প্রদর্শনী প্রকল্পের প্রয় ৬ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগটি সঠিক নয়। কৃষক ছাদিককে বিভিন্ন সময়ে ফসল উৎপাদনে সরকারি বরাদ্দ থেকে অতিরিক্ত সার না দেয়ায় ক্ষুদ্ধ হয়ে তিনি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: