সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রমজানে নিত্যপণ্যের অগ্নিমূল্যে সিলেটের মানুষ দিশেহারা

ramdhan daily sylhetস্টাফ রিপোর্টার::
সিয়াম সাধনার মাস রমজান আসলেই ডাল, ছোলা, শশা, খেজুর সহ অন্যন্য পণ্যের দাম দাম কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেন ব্যবসায়ীরা। রোজার আগে হঠাৎ করেই দাম বেড়েছিল নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের। রোজা শুরুর সঙ্গে সঙ্গে সবজির বাজারও চড়া হয়। রোজার তিন দিন অতিক্রম করলেও দাম কমেনি, বরং বেড়েছে বেশ কিছু পণ্যের দাম।খুচরা ও পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, যেকোনো উৎসবেই জিনিসপত্রের চাহিদা বেড়ে যায়। আর এ সুযোগে দামও বাড়ে। যেমনটি রোজার আগে ঘটেছে, যা এখনো অব্যাহত আছে। রোজার মাসের প্রথম সাপ্তাহিক ছুটির দিনে সিলেটের বাজারে কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে ফার্মের মুরগি ও চিনির দাম। তবে অপরিবর্তিত দামে বিক্রি হচ্ছে কাঁচা সবজি, পেঁয়াজ, রসুন, আদা। শুক্রবার সিলেট নগরীর পাইকারি ও খুচরা বাজারের ক্রেতা-বিক্রেতারা এমন তথ্য জানান।

নগরীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, এ সপ্তাহে বাজারে ২০ টাকা বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে বয়লার মুরগি এবং ৪০ টাকা বাড়তি দামে লেয়ার মুরগি। সিটি করপোরেশন থেকে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৪০০ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও দুয়েকটি বাজারে ২০ থেকে ৪০ টাকা বাড়তি দামে বিক্রি করতে দেখা গেছে। চলতি সপ্তাহে বয়লার প্রতি কেজি ১৮০ টাকা, লেয়ার প্রতি কেজি ২২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আকারভেদে দেশি মুরগি কেজি প্রতি বিক্রি হচ্ছে ৩৫০ টাকা। পাকিস্তানি মুরগি বিক্রি হচ্ছে পিস ২৮০ টাকা।

কয়েক সপ্তাহ ধরে বেড়ে যাওয়া দামেই বাজারভেদে মসুর ডাল (দেশি) ১৫০ টাকা, ছোলা ৯০ থেকে ৯৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর কেজি প্রতি তিন টাকা বাড়তি দামে ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে চিনি।এদিকে, অপরিবর্তিত দামে আলু ২৫ টাকা, আদা ৬০ টাকা, পেঁয়াজ (দেশি) ৪২ থেকে ৪৫ টাকা, আমদানি পেঁয়াজ ২৮ থেকে ৩২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর বৃদ্ধি পাওয়া দামে প্রতি কেজি রসুন (আমদানি) ২১০ থেকে ২২০ টাকায়, দেশি রসুন ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। হালি প্রতি দুই টাকা কমে ফার্মের মুরগির ডিমের হালি ৩০ টাকা (ডজন ৯০) টাকায় বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া হাঁসের ডিমের হালি ৩৫ টাকা (ডজন ১০০ টাকা) ও দেশি মুরগির ডিমের হালি ৫০ টাকায় (ডজন ১৫০ টাকা) বিক্রি হচ্ছে।

এদিকে অপরিবর্তিত দামে ঢেঁড়স ৫০ টাকা, ঝিঙা ৫০ টাকা, পটল ৫০ টাকা, সব ধরনের শাক ২০ থেকে ৩০ টাকা, মিষ্টি কুমড়া ৩০ টাকা, গাজর ৫০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৮০ টাকা, ধনেপাতা ২০০ টাকা, পেঁপে ৪০ টাকা, শসা ৫০ টাকা, টমেটো ও করলা ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।আর সিটি করপোরেশন নির্ধারিত দামেই বিক্রি হচ্ছে গরু, খাসির মাংস। অন্যদিকে নগরীর বাজারে আগের দামেই রুই মাছ (ছোট) কেজি ২৬০ টাকা, বড় ২৮০ টাকা, ছোট কাতলা ২৫০ টাকা, বড় ৩০০ টাকা, চিংড়ি (ছোট) ৪০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৬০ থেকে ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

নগরীর রিকাবীবাজার, আম্বরখানা, মদিনামার্কেট, কাজিরবাজার, সোবহানীঘাট ও শিবগঞ্জ বাজারে গিয়ে দেখা গেছে, প্রতিকেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকা থেকে ১০০ টাকায়, কাঁচামরিচ ৮০ টাকা থেকে ৯০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তা ছাড়া প্রতিকেজি পেঁপে ৪০ টাকা থেকে ৪৫ টাকায় (গত সপ্তাহে ছিল ৩০ টাকায়), শসা ৪০ টাকা থেকে ৪৫ টাকায় (গত সপ্তাহে বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা), গাজর ৫০ টাকা থেকে ৬০ টাকা, টমেটো ৪৫ টাকা থেকে ৫০ টাকা (গত সপ্তাহে ছিল ৩০-৩৫ টাকা), ধনিয়া পাতা ২০০থেকে ২৫০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। বাজারে অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা ভাল মানের ছোলা বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১১৫ টাকা। এ ছাড়া মানভেদে প্রতিকেজি ছোলা ৯৫ থেকে ১১০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) অস্ট্রেলিয়া থেকে আমদানি করা ছোলা খোলা বাজারে ট্রাক সেলে প্রতিকেজি ৭০ টাকায় বিক্রি করছে।

খুচরা বাজারে প্রতিকেজি চিনি ৬০ টাকা থেকে ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। টিসিবি প্রতিকেজি চিনি দেশি চিনি ৪৮ টাকায় বিক্রি করছে। খুচরা বাজারে মানভেদে প্রতিকেজি মসুর ডাল ১৫০ টাকা থেকে ১৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তা ছাড়া অ্যাংকর (বুটের) ডাল ৬০-৬২ টাকায়, খেসারির ডাল ৮০ থেকে ৮৫ টাকা, বুটের ডালের বেসন ১২০ টাকা, অ্যাংকর ডালের বেসন ৮০ টাকা বিক্রি হচ্ছে। টিসিবি মশুর ডাল ৮৯ টাকা ৯৫ পয়সায় বিক্রি করছে।

খুচরা বাজারে মানভেদে প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ ৪০ থেকে ৫০ টাকায় এবং আমদানি করা পেঁয়াজ ৩০ থেকে ৩৫ টাকা বিক্রি করতে দেখা গেছে। বাজারে চীন থেকে আমদানি করা রসুন ২০০ টাকা থেকে ২২০ টাকায় এবং দেশি রসুন ১২০ থেকে ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে প্রতিকেজি খোলা সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ৮৫ টাকা থেকে ৯৫ টাকায়। পাঁচ লিটারের বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ৪৫০ টাকা থেকে ৪৫৫ টাকায়। এক লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ৯২ টাকা থেকে ৯৫ টাকায়। তবে সরকারি সংস্থা টিসিবি প্রতি লিটার সয়াবিন তেল বিক্রি করছে ৮০ টাকায়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: