সর্বশেষ আপডেট : ১২ মিনিট ৩০ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

দিরাইয়ে ইউপি সদস্য আবুবক্করকে খুন করতে গিয়ে ৬ জনকে গুলিবিদ্ধ করলো আমির উদ্দিন বাহিনী

63b7790a-9728-452c-9404-03b46c998083আল-হেলাল::সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৬ জন গুলিবিদ্ধসহ ১০ জন আহত হয়েছে। দিরাই উপজেলার কুলঞ্জ ইউনিয়নের সুরিয়ারপাড় গ্রামে বুধবার রাত ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যেক্ষদর্শীরা জানান, মামলা মোকদ্দমা সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে সুরিয়ারপাড় গ্রামের বিশিষ্ট রাজাকার আমিরুল ইসলামের ভাতিজা আমির উদ্দিন,এরশাদ আলী ও নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য আঙ্গুর মিয়া গং তাদের প্রতিপক্ষ আবুবক্কর মেম্বারকে খুন করার লক্ষ্যে গ্রামে গোত্রীয় লোকদেরকে সংঘবদ্ধ করে চাঁদা উত্তোলন করে মোটা অঙ্কের টাকা পকেটস্থ করে স্থানীয় ডাকাত মালেককে ভাড়া করে আনার পাশাপাশি অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র জমা করে।

পরিকল্পনা মোতাবেক বুধবার সন্ধ্যায় তারা তাদের প্রতিপক্ষ গ্রামের জনপ্রিয় ইউপি সদস্য আবুবক্কর এর বাড়িতে অতর্কিত হামলা চালায়। এসময় তারা দেশীয় বন্দুকসহ কাটা রাইফেল ও পিস্তলের গুলি বর্ষন করে। আমির উদ্দিন বাহিনীর গুলিতে আবু বক্করের পরিবারের সোয়াব আলী (৪৫),রেদওয়ান (১৭),নোয়াব আলী (৫০),শফিকুল ইসলাম (৩৫),এমরান (৩৭) হাবিব মিয়া (১৩),রুমান মিয়া (১৫),রাবেয়া বেগম (৪০),নাজিয়া বেগম (১০) ও ইব্রাহিম (২৭) গুলিবিদ্ধ ও আহত হন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় প্রথমোক্ত ৬ জনকে সিলেটস্থ এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়।

এ ব্যাপারে আবু বক্কর বলেন,আমির উদ্দিন ও তার সহযোগীরা আমার বাবাকে ৩০ বছর আগে নির্মমভাবে খুন করেছিলো। আমি খুনীদের বিরুদ্ধে ন্যায় বিচার চেয়ে সরকারের কাছে একাধিকবার আবেদন নিবেদন করেছি। এই আক্রোশে এচক্রটি জেলা সদর,জগন্নাথপুর ও এলাকায় যেখানেই যা ঘটে আমাকে জড়িত দেখিয়ে হামলা মামলায় আমাকে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করে।

সর্বশেষ তারা বুধবার প্রায় ২৫ জন মিলে আমার বসতঘর লক্ষ্য করে এলোপাতাড়িভাবে গুলি ও ইট পাটকেল ছুড়তে থাকে। এতে আমার পরিবারের ৮/১০ জন লোকসহ আরো অনেক নিরীহ লোকজন আহত হন। গ্রামের নিরপেক্ষ লোকজন বলেন,আমির উদ্দিন বাহিনী জগন্নাথপুর থানার একটি হত্যা মামলাতেও আবুবক্করকে আসামী করে। এখন তারা তাকে দুনিয়া থেকে বিদায় করে দিতে চায়। এলক্ষ্যেই ডাকাত মালেক বাহিনীকে ভাড়ায় এনে আবুবক্কর খুনের কিলিং মিশন বাস্তবায়নে চেষ্টা করে। কিন্তু রাখে আল্লা মারে কে ? দিরাই থানা ওসি আনিসুর রহমান সংঘর্ষের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,গুলাগুলির খবর পেয়ে পুলিশ পাটিয়ে তদন্তক্রমে আমরা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়েছি। এখন অভিযোগ পেলে ব্যাবস্থা নেবো। এদিকে আবু বক্কর ও তার পরিবারের লোকজন তাদের নিরাপত্তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর কঠোর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: