সর্বশেষ আপডেট : ৩০ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ’র বেতন বৃদ্ধির প্রতিবাদে অর্থমন্ত্রীর সাথে অভিভাবকবৃন্দের সাক্ষাত আজ

bloব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজের বেতন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া বৃদ্ধির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টায় ধোপাদিঘীর পাড়স্থ হাফিজ কমপ্লেক্সে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আব্দুল মুহিত মহোদয়ের সাথে সাক্ষাতের জন্য সচেতন অভিভাবক বৃন্দকে যথাসময়ে উপস্থিত হয়ে মন্ত্রী মহোদয়ের সাথে দেখা করে অযৌক্তিক ভাবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নিষেধ থাকা স্বত্ত্বেও ছাত্র ছাত্রীর বেতন কেন বৃদ্ধি করা হল সে বিষয়ে আলাপ আলোচনা করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হচ্ছে।

অভিভাবক বৃন্দের অভিযোগ হচ্ছে ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ/গভর্নিং বডি অভিভাবকদের না জানিয়ে ও নোটিশ না দিয়ে ২০১৬ইং সালের ছাত্র ছাত্রীর বেতন অতিমাত্রায় বৃদ্ধি করেন। এবং জানুয়ারী মাসের অতিরিক্ত সেশন ফি সহ মাসিক বৃদ্দি করা বেতন প্রদান করার জন্য বেতন কার্ডে লিখে দেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয় বেতন বৃদ্দি না করার জন্য জানালে ফেব্র“য়ারী ২০১৬ হইতে মে ২০১৬ইং (চার মাস) শিক্ষার্থীর বেতন প্রাইম ব্যাংক গ্রহণ করে নাই। সচেতন অভিভাবকবৃন্দ জানান ২০১৬ ইং সালে বেতন বৃদ্দি না করে ২০১৫ ইং সালের ন্যায় শিক্ষার্থীর বেতন নেওয়ার জন্য অধ্যক্ষকে জানানো হয়। অধ্যক্ষ/গভর্নির বডি অভিভাবকদের কথা না ভেবে/শুনে পরবর্তীতে ৩০ মে ২০১৬ সংশোধিত বর্ধিত হারে শিক্ষার্থীর বেতন ৩১মে ২০১৬ হইতে ব্যাংকে প্রদান করার জন্য নোটিশ প্রদান করেন এবং নোটিশের নিচে বিঃদ্রঃ তে লিখেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরবর্তী নির্দেশনা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অভিভাবকদের দাবী ও প্রশ্ন হচ্ছে শিক্ষা মন্ত্রণালয় বর্ধিত হারে বেতন না নেওয়ার জন্য বলেছেন কিন্তু অধ্যক্ষ/গভর্নিং বডি নিষেধ অমান্য করে অতিরিক্ত হারে ছাত্র ছাত্রীর বেতন নিবেন কেন ? শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পাওয়ার পর শিক্ষার্থীর বেতনের হার নির্ধারণ করে বেতন নেওয়া হোক। অথবা ২০১৫ইং সালের ছাত্র ছাত্রীর বেতনের হারে ২০১৬ইং সালের শিক্ষার্থীর বেতন প্রতিমাসে নেওয়া হোক এবং গত ২০১৬ইং সালের ৪ মাসের বেতন কিস্তিতে নেওয়া হোক।
ব্লু-বার্ড স্কুলের অধ্যক্ষের আদেশক্রমে শিক্ষক, শিক্ষিকা, গভর্নিং বডি, অফিস স্টাফ, পিয়ন, আয়া, দারোয়ান সহ সকল কর্মচারীবৃন্দ কুমলমতি ছাত্রছাত্রীদের বলে দিচ্ছে বেতন না দিলে অর্ধবার্ষিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না এবং তোমাদের পরীক্ষার সিট বসানো হবে না। তোমাদের অভিভাবকদের বলবে অতিসত্তর বেতন ব্যাংকে জমা দিয়ে রিসিট ক্লাসের শিক্ষিকার কাছে জমা দিতে। রিসিট জমা না দিলে তোমাকে স্কুল থেকে টিসি দিয়ে বের করে দেওয়া হতে পারে। এভাবে ভয়ভীতি দেখিয়ে অভিভাবকদের কাছ থেকে শিক্ষার্থীদের বেতন আদায় করা হচ্ছে। যা শিষ্ঠাচার বহির্ভূত এবং কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মনে ভীতি সঞ্চার করার শামিল অভিভাবক বৃন্দ বলছেন সুষ্ঠু সমাধান না হওয়া পর্যন্ত অভিভাবক আপনার ছেলে মেয়ের বেতন না দেওয়ার জন্য অনুরোধ রইল। গত ৩০ মে ২০১৬ইং তারিখে অধ্যক্ষ মহোদয় ছাত্রছাত্রীর বেতনের নোটিশ স্থগিত করার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করা হচ্ছে।

ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীর বেতন বৃদ্দির প্রতিবাদে অভিভাবক বৃন্দের পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছে, সুষ্ঠু সমাধানের লক্ষে সুশিল সমাজ, সাংবাদিক, রাজনীতিবিদ সহ সর্বস্থরের জনসাধারণকে এগিয়ে আসার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ব্লু-বার্ড স্কুল এন্ড কলেজ, মিরের ময়দান সিলেটের শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি না পেয়ে ছাত্র ছাত্রীর বেতন বৃদ্ধির প্রতিবাদে গত ০২ জুন ২০১৬ইং বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় স্কুলের প্রধান গেইটের সামনে শিক্ষার্থীর অভিভাবক বৃন্দের আয়োজনে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় এবং গত ০৬ জুন ২০১৬ইং সোমবার সকাল ৯টায় ব্লু-বার্ড স্কুলের সামনে ছাত্র ছাত্রীর সচেতন অভিভাবকবৃন্দ মিলিত হয়ে জেলা প্রশাসক, সিলেটে এক স্মারকলিপি সকাল সাড়ে ১০টায় প্রদান করা হয় এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়সহ বিভিন্ন দপ্তরে অনুলিপি পাঠানো হয়।বিজ্ঞপ্তি

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: