সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটে দু’টি মাদক মামলার রায়: একজনের যাবজ্জীবন, দু’জনের ৩ বছর কারাদন্ড

2. daily sylhet bochar newsস্টাফ রিপোর্টার::
সিলেটে পৃথক দুটি মাদক মামলায় এক মাদক বিক্রেতার যাবজ্জীবন ও অপর দুই বিক্রেতাকে ৩ বছর করে কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে সিলেট বিশেষ দায়রা জজ (জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল) আদালতের বিচারক মো. মফিজুর রহমান ভূইঞা পৃথক এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামির নাম বাদশা মিয়া (৩৫)। সে মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়া থানার ব্রাক্ষণবাজার গ্রামের কুটি মিয়ার ছেলে এবং অপর দন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে, জকিগঞ্জ থানার বেউড গ্রামের মো. লুতু মিয়ার ছেলে মো. খলন আহমেদ (২৪) ও একই থানার ভূইয়ারমুড়া গ্রামর মৃত গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মো. কামাল আহমেদ (২২)। রায় ঘোষণার সময় দন্ডপ্রাপ্ত কোন আসামিই আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন না। বর্তমানে তারা পলাতক রয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১১ সালের ২৫ নভেম্বর সকাল পৌনে ১০ টার দিকে র‌্যাব-৯’র একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দক্ষিণ সুরমা কদমতলী কেন্দ্রীয় বাস র্টামিনালস্থ হোটেল তাজমহলের সামনে অভিযান চালিয়ে মাদক বিক্রেতা বাদশা মিয়াকে গ্রেফতার করে। এ সময় র‌্যাব তার সাইট ব্যাগ তল্লাশি করে ১২ হাজার টাকা দামের ৩০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে। এ ব্যাপারে র‌্যাব-৯’র এসআই মোঃ সাহাদাত হোসেন বাদি হয়ে তার বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। নং- ১৫ (২৫-১১-১১)। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ২১ ডিসেম্বর দক্ষিণ সুরমা থানার এসআই মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তালুকদার একমাত্র বাদশা মিয়াকে অভিযুক্ত করে আদালতে এ মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন এবং ২০১৩ সালের ৮ জানুয়ারী থেকে আদালত তার বিরুদ্ধে অভিযোগগঠন করে বিচারকার্য্য শুরু করেন। দীর্ঘ শুনানী ও ৬ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আসামী বাদশা মিয়াকে ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (১) ধারার টেবিলের ৩ (খ) ক্রমিকে দোষী সাব্যস্ত করে তাকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড, ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। রাষ্টপক্ষে স্পেশাল পিপি এডভোকেট নওসাদ আহমদ চৌধুরী ও আসামীপক্ষে পদ্মাসন সিংহ মামলাটি পরিচালনা করেন।

এদিকে, ২০১১ সালের ২৬ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে র‌্যাব-৯’র একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দক্ষিণ সুরমা হযরত শাহজালাল ব্রীজের দক্ষিণ প্রান্তে অভিযান চালিয়ে মাদক বিক্রেতা খলন আহমেদ ও কামাল আহমেদকে গ্রেফতার করে। এ সময় র‌্যাব খলনের কমরে গোজা ১০ বোতল ও কামালের কাছ থেকে ৮ বোতল রিকোডেক্্র ভারতীয় নেশাজাতীয় সিরাপ উদ্ধার করে। যার মূল্যে ৩ হাজার ৬শ’ টাকা। এ ব্যাপারে র‌্যাব-৯’র এসআই আলাউদ্দিন খান বাদি হয়ে তাদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ সুরমা থানার এসআই মো. হারুন মজুমদার ২ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে এ মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করেন এবং ২০১২ সালের ১০ এপ্রিল থেকে আদালত তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগগঠন করে বিচারকার্য্য শুরু করেন। দীর্ঘ শুনানী ও ৭ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত আসামী খলন আহমেদ ও কামাল আহমেদকে ১৯৯০ সনের মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (১) ধারার টেবিলের ৩ (ক) ক্রমিকে দোষী সাব্যস্ত করে তাদের প্রত্যেককে ৩ বছর করে সশ্রম কারাদন্ড, ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাস করে বিনাশ্রমে কারাদন্ড প্রদান করেন।

রাষ্টপক্ষে স্পেশাল পিপি এডভোকেট নওসাদ আহমদ চৌধুরী ও আসামীপক্ষে এডভোকেট মোঃ ফজলুল হক মামলাটি পরিচালনা করেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: