সর্বশেষ আপডেট : ২ মিনিট ১১ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ভারতকে মুসলিম মুক্ত করার ডাক

4bk69b8ee13d1d8feg_800C450আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ভারতের বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেত্রী সাধ্বী প্রাচি বলেছেন, ‘আমরা ভারতকে কংগ্রেস মুক্ত করেছি, এবার মুসলিম মুক্ত ভারত তৈরি করতে হবে। আর এজন্য আমরা কাজ করছি।’

তিনি মঙ্গলবার রুরকিতে ফের বিতর্কিত এ মন্তব্য করেন ।

সাধ্বী প্রাচি ভারতীয় চিত্র তারকা শাহরুখ খান এবং আমীর খানের সমালোচনা করে বলেন, দুটি ফ্লিম ফ্লপ হতেই শাহরুখের হিন্দুদের কথা মনে পড়েছে। এরকমই আমীর খানের আসন্ন ফিল্মের সঙ্গে হওয়া উচিত। এরা ভারতের খেয়ে পাকিস্তানের গীত গায়।

উত্তর প্রদেশে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন সম্পর্কে সাধ্বী প্রাচি বলেন, ‘বিজেপি যদি যোগী আদিত্যনাথকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসেবে সামনে রাখে তাহলে বিজেপি ৩০০ আসন পাবে এবং উত্তর প্রদেশ অনাচার, অত্যাচার মুক্ত হবে। এর ফলে মুসলিম মুক্ত উত্তর প্রদেশ হবে এবং ‘উত্তম প্রদেশ’ তৈরি হবে।’

গত বছর ফেব্রুয়ারিতে উত্তরপ্রদেশের বদায়ূঁতে এক সভায় সাধ্বী প্রাচী মুসলিমদের টার্গেট করে বিতর্কিত মন্তব্যে বলেন, ‘লাভ জিহাদের নামে আমাদের মেয়েদের ফাঁসানো হচ্ছে। তার পর এরাই ৩৫-৪০ জনের জন্ম দিচ্ছে।’ তার প্রশ্ন, পরিবার পরিকল্পনার দায় কেন শুধু হিন্দুদের উপরই বর্তাবে?

ভারতীয় ঐতিহ্য বাঁচিয়ে রাখতে প্রত্যেক হিন্দু মহিলার অন্তত চার সন্তানের জন্ম দেওয়া উচিত বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এ নিয়ে বিতর্ক বাধলে জবাবে সাধ্বী প্রাচি বলেন, ‘আমি তো চার সন্তান জন্ম দেয়ার কথা বলেছিলাম, ৪০টি কুকুরছানা জন্ম দেয়ার কথা তো বলিনি।’

সাধ্বী প্রাচির আগে ‘ধর্ম জাগরণ মঞ্চ’ নামে উগ্র হিন্দুত্ববাদী এক সংগঠনের পক্ষ থেকে ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে দাবি করা হয় ২০২১ সালের মধ্যে ভারতকে মুসলিম এবং খ্রিস্টান মুক্ত করা হবে। সংগঠনটির পশ্চিম উত্তর প্রদেশের প্রধান রাজ্যেশ্বর সিং বলেন, ‘মুসলিম এবং খ্রিস্টানদের ভারতে থাকার অধিকার নেই। ইসলাম বিদেশি ধর্ম। যদি ওরা মুসলমান হয়ে ভারতে থাকতে চায়, ওদের থাকতে দেয়া হবে না। তা সে বাংলাদেশি হোক বা অন্য কেউ হোক। এই দেশ মুসলমানদের সম্পত্তি নয়।’

তিনি আরো বলেন, ‘ভারত মুসলিমদের জন্য নয়। তার পরামর্শ- ‘পাকিস্তান আছে, বাংলাদেশ আছে, আপনারা সেখানে গিয়ে থাকুন।’ এবার বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেত্রী সাধ্বী প্রাচি ভারতকে মুসলিম মুক্ত করার ডাক দিলেন এবং সেই লক্ষ্যে কাজ চলছে বলেও জানিয়েছেন। খবর-রেডিও তেহরান।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: