সর্বশেষ আপডেট : ১০ মিনিট ৫৬ সেকেন্ড আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বাংলাদেশ হতে পারে সৌদি ব্যবসায়ীদের ‘সেকেন্ড হোম’ : প্রধানমন্ত্রী

Untitled-1 copyনিউজ ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে জেদ্দা বণিক সমিতি ভবনে নির্মাণশিল্পে প্রকৌশলী, স্থাপত্যবিদসহ দক্ষ জনশক্তি সরবরাহে সৌদি আরবের বাওয়ানি গ্রুপ এবং বাংলাদেশের সেনাকল্যাণ সংস্থার মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়।

সৌদি আরবের ব্যবসায়ীদের জন্য বাংলাদেশ ‘সেকেন্ড হোম’ হতে পারে বলে উল্লেখ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি সৌদি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

আজ সকালে জেদ্দা চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (জেসিসিআই) নেতাদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এ আহ্বান জানান। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

প্রধানমন্ত্রী বর্তমানে সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে পাঁচদিনের সরকারি সফরে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন।

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী তৈরি পোশাক খাতে দেশের ব্যাপক অগ্রগতির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বলেন, বাংলাদেশ তৈরি পোশাক খাতে (আরএমজি) অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে এবং আমরা এখন বিশ্বে দ্বিতীয় বৃহত্তম তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক দেশ। এই শিল্পে বর্তমানে প্রায় ৫০ লাখ শ্রমিক কর্মরত রয়েছেন, যাঁর মধ্যে ৯০ শতাংশই নারী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তৈরি পোশাক খাতের মতোই ফার্মাসিউটিক্যালস, তথ্যপ্রযুক্তি এবং জাহাজ নির্মাণশিল্পেও আমাদের প্রভূত উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। আমাদের ওষুধশিল্প দেশের শতকরা ৯৭ ভাগ অভ্যন্তরীণ চাহিদা মিটিয়ে বিশ্বের ৯২টি দেশে রপ্তানি হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, গার্টেনারের মতে, সফটওয়্যার ও আইটি সার্ভিসের জন্য বিশ্বের ৩০টি শীর্ষস্থানীয় দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। বাংলাদেশের তৈরি হাজারও সফটওয়্যার অ্যাপ্লিকেশন এখন আইফোন, স্যামসাং গ্যালাক্সি এবং ব্লাকবেরি ফোনে ব্যবহৃত হচ্ছে।

শেখ হাসিনা বলেন, গত বছর আমাদের আইটি কোম্পানিগুলো এবং ফ্রিল্যান্স আইটি পেশাজীবীরা ৩৬০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করেছেন। প্রতিবছর প্রায় ২০ হাজার আইটি গ্রাজুয়েট এই খাতে যোগ দিচ্ছেন।

‘আমাদের নির্মাতারা বিশ্বমানের হালকা ও মাঝারি সামুদ্রিক জাহাজ নির্মাণ করে বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন। এই শিল্পের ২০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের আন্তর্জাতিক বাজারের এক শতাংশ শেয়ার এখন বাংলাদেশের দখলে।’

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ এবং সৌদি আরবের মধ্যকার চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক বিদ্যমান। এই সম্পর্ক গড়ে উঠেছে একই ধর্মীয় বিশ্বাস, সংস্কৃতি, মূল্যবোধ এবং পরস্পরের প্রতি আস্থার ওপর ভিত্তি করে। সপ্তম শতকে আরব ব্যবসায়ীরা যখন প্রথম বাংলাদেশের বন্দরনগরী চট্টগ্রামে আসেন, তখন থেকেই এই বাণিজ্য সম্পর্কের সূচনা।’

এ সময় জেসিসিআইয়ের ভাইস চেয়ারম্যান মাজেন এম ব্যাটারজি তাঁর বক্তৃতায় দ্বিপক্ষীয় ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন। সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০-এর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই সময়ের মধ্যে আন্তর্জাতিক ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই সফরের মধ্য দিয়ে দুই দেশের বোঝাপড়া আরো বৃদ্ধি পাবে বলে আশা প্রকাশ করেন জেসিসিআইর ভাইস চেয়ারম্যান।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. আবুল কালাম আজাদ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সালমান এফ রহমান, এফবিসিসিআইর সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমাদ উপস্থিত ছিলেন।

নির্মাণশিল্পে প্রকৌশলী, স্থাপত্যবিদসহ দক্ষ জনশক্তি সরবরাহে বৈঠকে সৌদি আরবের বাওয়ানি গ্রুপ এবং বাংলাদেশের সেনাকল্যাণ সংস্থার মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারকও স্বাক্ষরিত হয়।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. আবুল কালাম আজাদ এবং বাওয়ানি গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক ফখীর আল সাওয়াফ উভয় পক্ষের পক্ষে স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: