সর্বশেষ আপডেট : ১৬ মিনিট ৪৮ সেকেন্ড আগে
সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

কোন স্লোগান দিবেন না, বললেন ওবায়দুল কাদের

143939_1নিউজ ডেস্ক:: ‘কোন স্লোগান দিবেন না, আমি সরকারি প্রোগ্রামে এসেছি। মানিকগঞ্জে এসে আমি অনেকবার স্লোগান না দিতে বলেছি। আমার সঙ্গে দেখা করতে এসেছেন, দেখা করুন।’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শুক্রবার বেলা পৌনে ১১টায় মানিকগঞ্জের পাটুরিয়া ফেরিঘাটে সড়ক ও জনপথের পরিদর্শন বাংলো ‘পদ্মা-যমুনা’ উদ্বোধন করতে এসে গাড়ি থেকে নামার সময় শুভেচ্ছা জানিয়ে স্লোগান দেয়া নেতা-কর্মীদের এসব কথা বলেন।

সঙ্গে সঙ্গে নেতা-কর্মীও দলীয় ও শুভেচ্ছার এই স্লোগান দেয়া থেকে বিরত থাকেন। এরপর বাংলোর ভেতর গিয়ে মন্ত্রী উপস্থিত প্রশাসনের কর্মকর্তা ও দলীয় নেতা-কর্মীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং আধা ঘণ্টা বিশ্রাম নেন।

এই সময়ের মধ্যে পৃথকভাবে মন্ত্রীকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাতে শিবালয় উপজেলা ছাত্রলীগ ও শ্রমিকলীগ নেতা-কর্মী নিজ নিজ সংগঠনের ব্যানারে স্লোগানে আসা পথেই বাংলোর সম্মুখ থেকে জ্যেষ্ঠ নেতারা থামিয়ে দেন। স্লোগান বন্ধ করে বাংলোর ভেতর প্রবেশ করেন তারা।

এরপর মন্ত্রী সাড়ে ১১টার দিকে ফলক উন্মোচিত করে পরিদর্শন বাংলো ‘পদ্মা-যমুনা’ উদ্বোধন করেন।

এ সময়ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দিন হাত উচিয়ে স্লোগান দিয়ে স্বাগত ও শুভেচ্ছা জানাতে গেলে মন্ত্রী হাত টেনে ধরেন। স্লোগান না দিতে তাকেও অনুরোধ করেন।

উদ্বোধন শেষে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্লের জবাবে বলেন, ‘বাজেট নিয়ে প্রতিক্রিয়া করতে চাই না। সরকার আলাপ-আলোচনা করেই এই বাজেট ঘোষণা করেছে।’

তিনি বলেন, ‘নবীনগর থেকে পাটুরিয়া ফেরিঘাট পর্যন্ত মহাসড়কটি চার লেনে উন্নতি করা হচ্ছে। আগামী সেপ্টেম্বরের মধ্যে এই প্রক্রিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করা হবে। এতে জনদুর্ভোগ অনেক কমে আসবে।’

জনপরিবহনের সমস্যা প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি এই মহাসড়কে বিআরটিসির আরো বেশি সংখ্যক বাস দিতে চাই। কিন্তু, স্থানীয় পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের বিরোধিতার কারণে দেই না। সবাই মিলেমিশে এলে অবশ্যই এই জনপরিবহনের সমস্যা সমাধান করা হবে।’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী আরো বলেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিক্ষিপ্তভাবে বেশকিছু সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে অযোগ্যতার কারণে। এই সহিংসতা থেকে সকলেরই অভিজ্ঞতা হয়েছে, যাতে আগামীতে এই ধরনের কোনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।’

মন্ত্রী সকলকে আশ্বস্ত করে বলেন, ‘আগামী ঈদে মানুষের ঘরে ফেরা নিয়ে মহাসড়কে কোনো ভোগান্তি হবে না। অন্যান্য বারের চেয়ে এবার ঈদ প্রস্ততি অনেক ভালো।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবারে মন্ত্রী আরো বলেন, পরিবহন সেক্টরে চাঁদাবাজি নিয়ে ইতোমধ্যেই বৈঠক করা হয়েছে। এই চাঁদাবাজি কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে।’

সড়ক দুর্ঘটনা প্রসঙ্গে মন্ত্রী ওবাদুল কাদের বলেন, ‘ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক ছিল প্রতি দিনের মরণ ফাঁদ। এটা বন্ধ হয়ে গেছে। এখন যেসব দুর্ঘটনা হচ্ছে, তার বেশির ভাগই মহাসড়কের অটোবাইক ও হ্যালোবাইক চলাচলের কারণে। এসব গাড়িতে উঠবেন না বলেও যাত্রীদের আহ্বান জানান মন্ত্রী।’

বাংলো উদ্বোধনকালে মন্ত্রীর সঙ্গে অন্যদের মধ্যে স্থানীয় মানিকগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য নাঈমুর রহমান দুর্জয়, সড়ক ও জনপথের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান, সচিব এসএএম সিদ্দিকী, ঢাকা বিভাগের তত্ত্বাবধায়ক সবুজ উদ্দিন খান, মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাশিদা ফেরদৌস, পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান ও সওজের মানিকগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী মহিবুল হক ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট গোলাম মহীউদ্দিনসহ প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধন শেষে মন্ত্রী বাংলোর ভেতর-বাইরে ঘুরে দেখে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হন।

প্রসঙ্গত, পাটুরিয়া ফেরিঘাটের অদূরে আরসিএল মোড় সংলগ্ন ৯৬ শতাংশ জমিতে রাজস্ব খাতের ৩ কোটি ৪৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ২৬৩০ বর্গফুটের দ্বিতল ‘পদ্মা-যমুনা’ বাংলো নির্মাণ করা হয়েছে।

এতে নিচ তলায় একটি অতিথি কক্ষ, দুইটি ডাইনিং কক্ষ ও একটি লাউঞ্জ এবং দ্বিতীয় তলায় ভিআইপি অতিথি কক্ষ দুইটি, সাধারণ অতিথি কক্ষ দুইটি ও একটি লাউঞ্জ রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: