সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সিলেটী বধু মাহির মামলা কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটে

bdmmডেইলি সিলেট ডেস্ক::
একজন স্বামী রেখে দ্বিতীয় বিয়ের অভিযোগে চিত্র নায়িকা মাহীর বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা দায়ের করবে শাওনের পরিবারের। মুসলিম পারিবারিক আইন অনুযায়ি একজন নারী একটি বিয়ে করতে পারেন। দ্বিতীয় বিয়ে করার আগে তার পূর্বের বিয়ের সম্পর্ক আইনগতভাবে বিচ্ছিন্ন করতে হবে। প্রথম বিয়ের তথ্য গোপন করায় এই প্রতারণার মামলা দুই একদিনের মধ্যে দায়ের করা হবে বলে জানিয়েছেন শাওনের আইনজীবী বিল্লাল হোসেন।

অন্যদিকে, উত্তরা পশ্চিম থানায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে দায়ের করা মামলাটির তদন্তভার দ্রুত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষায়িত ইউনিট কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) শাখায় হস্তান্তর হওয়া নিয়ে ডিএমপি’র অনেক পদস্থ কর্মকর্তা প্রশ্ন তুলেছেন।

এ ব্যাপারে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের সিটিটিসি শাখার একজন নীতি নির্ধারণী কর্মকর্তা বলেন, আমাদের কাছেও অজস্ব ফোন এসেছে যে ঐ মামলাটি আমরা তদন্ত করি। তবে এই ইউনিটের সঙ্গে সাইবার ক্রাইমের সম্পর্ক রয়েছে বলেই ঐ মামলাটি সিটিটিসি তদন্তের দায়িত্ব নিয়েছে। এর সঙ্গে জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার কোন সম্পর্ক না থাকলেও বিষয়টি সামাজিকভাবে অবক্ষয়ের দিকটি বিবেচনা করা হয়েছে।

বুধবার শাহরিয়ার ইসলাম শাওনের পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে যে মাহী-শাওনের প্রথম বিয়ে। মাহীর প্রথম স্বামীই হচ্ছেন শাওন। গত ২৪ মে সিলেটের ব্যবসায়ি পারভেজ অপুকে গোপনে বিয়ে করার বিষয়টি ছিল মাহীর দ্বিতীয় বিয়ে।

পারিবারিকভাবে গত বছরের ১৫ মে শাওন ও মাহীর মধ্যে বিয়ে হয়। বিয়েতে দুই পরিবারের অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে, মঙ্গলবার চিত্র নিয়া মাহী ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন।

ডিবির একজন কর্মকর্তা জানান, তিনি মামলা সংশ্লিষ্ট তদন্তকারী কর্মকর্তা সিটিটিসি শাখার পদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করেছেন। মাহী ডিবির কর্মকর্তাদের কাছে শাওনের সঙ্গে আপোষনামার একটি প্রস্তাব দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে শাওনের চাচা বলেন, আমরা খুব আতংকে রয়েছি। কীভাবে কী করতে হবে তা বুঝতে পারছি না। আমরা অবশ্যই আইনগত দিক বিবেচনা করে মাহীর বিরুদ্ধে প্রতারণা মামলা দায়ের করব।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের একজন অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, গত ফেব্রুয়ারি মাসে ডিএমপিতে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের যাত্রা শুরু হয়। এই ইউনিটটি কাজ হলো দুর্ধর্ষ জঙ্গি ও আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসীদের প্রতিরোধ করা এবং জঙ্গি সংশ্লিষ্ট গবেষনা করবেন কর্মকর্তারা। এই ইউনিটিতে চৌকষ অফিসাররা যোগ দিয়েছেন। এরপর চিত্র নায়িকা মাহির দায়ের করা মামলাটি কেনইবা এই ইউনিটে তদন্তভার দেয়া হলো তা নিয়ে ডিএমপি কমিশনাররের কাছে একটি অভিযোগ দেয়া হবে।

উলেখ্য, গত ২৮ মে উত্তরা পশ্চিম থানায় চিত্র নায়িকা মাহিয়া মাহি উপস্থিত হয়ে তথ্য প্রযুক্তি আইনে একটি মামলা করেন। মামলায় প্রধান আসামী করা হয় তার প্রথম স্বামী শাহরিয়ার ইসলাম শাওন। এছাড়া মামরায় শাওনের বন্ধু হাসান, আল-আমিন, খাদেমুল ও রেজওয়ান ছাড়াও সাংবাদিক এফআই দীপু ও সাইফ চন্দনকে আসামী করা হয়েছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: