সর্বশেষ আপডেট : ১৩ মিনিট ২১ সেকেন্ড আগে
শুক্রবার, ২ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

সরকার উৎখাত করতে ৭দিনও লাগবেনা: হান্নান শাহ

143742_1নিউজ ডেস্ক::
বর্তমান অনির্বাচিত সরকারকে পতন করতে ৭দিনও সময় লাগবেনা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জে.(অব.) আ স ম হান্নান।

তিনি বলেন, আন্দোলন আন্দোলনের মাধ্যমে এই ভোট ডাকাতি সরকার, ব্যাংক ডাকাতি সরকারকে জনগনকে সাথে নিয়ে পতন করতে ৭ দিনও সময় লাগবেনা।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে অনলাইন নিউজ পোর্টাল সবুজ বাংলাটোয়েন্টিফোর.কমের তৃতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে ‘সংবাদপত্রের স্বাধীনতা ও আজকের বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

হান্নান শাহ অভিযোগ করে বলেন, বর্তমান সরকার তথাকথিত উন্নয়নের নামে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করছে। ৮৮০ কোটি টাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম ফোরলেনে ১৪,০০ কোটি টাকা ছাড়িয়ে গেছে। শুধু ঢাকা-চট্টগ্রাম নয় প্রতিটা মেগা প্রকল্পেই লুটপাট করা হচ্ছে। এটাই তার অন্যতম উদাহরণ।

তিনি বলেন, সরকার দেশের স্বার্থ বিদেশের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে। ট্রানজিটের নামে দেশের স্বার্থও অন্যদের দিয়ে দেওয়া হচ্ছে। দেশ পরিচালিত হয় জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি দ্বারা। কিন্তু বর্তমানে দেশ চলছে অবৈধ সরকারের অধীনে। যে কারণে জনগণের স্বার্থকে কোনো প্রাধান্য দিচ্ছে না সরকার যোগ করেন হান্নান শাহ।

নির্বাচন কমিশন প্রসঙ্গে বিএনপি নেতা বলেন, ইসি, সরকার ও প্রশাসন মিলে ভোট ডাকাতি করছে। ভোট থেকে জনগণকে দূরে রাখতেই এই উদ্যোগ। এরশাদকে চারদিনে ক্ষমতায় থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। নেত্রী বললে মিডিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ৭দিনে সরকারকে পদত্যাগ করানো সম্ভব। শুধু কথায় চিড়া ভিজবে না। সবাই রাজপথে নামলেই সরকার উৎখাত সম্ভব।

সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই উল্লেখ করে হান্নান শাহ বলেন, সংবাদপত্রের অপর নাম ছিল সন্দেশ। এটা সবার কাছে খেতেই ভালো লাগে। কৈশরে আজাদ পত্রিকা পড়ার জন্য উন্মূখ থাকতাম। কিন্তু বর্তমানে সেই সন্দেশ আর নেই।

তিনি বলেন, জনগণ এখন সত্য সংবাদ পাচ্ছে না। জনগণের মধ্যে মিথ্যা প্রপাগাণ্ডা ছড়ানো হচ্ছে। সত্য সাংবাদিক শুধু দেশে না পৃথিবীতে পাওয়া মুশকিল। গ্রেপ্তারকৃত সকল সাংবাদিকের মুক্তির দাবি করেন হান্নান শাহ।

তিনি আরো বলেন, ইসরাইলের সম্পর্ক বিএনপির সঙ্গে নেই না আওয়ামীলীগের সঙ্গে? এই সরকারের কোনো কোনো নেতার সঙ্গে ইসরাইলের যোগ সাজেস রয়েছে। আসলাম চৌধুরি ফুলের মামলা পরে বৈঠক করলেই রাষ্ট্রদ্রোহিতা হয়েছে।

আলোচনা সভায় আরো বক্তব্য রাখেন জাগপা’র সভাপতি শফিকুল আলম প্রধান, বিএনপি’র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাড. সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা: মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ইসলামি পার্টির চেয়ারম্যান এম এ তাহের চৌধুরী ও জাতীয়তাবাদী দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমূখ।আরটিএনএন

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: