সর্বশেষ আপডেট : ৪ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

বীথির অস্ত্রোপচার ২০ জুন, রক্তের প্রয়োজন

gনিউজ ডেস্ক:
মুখমণ্ডলসহ শরীরে লোম নিয়ে জন্ম নেওয়া বীথি আক্তারের (১২) অস্বাভাবিকভাবে বড় হয়ে যাওয়া স্তনে অস্ত্রোপচারের দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী ২০ জুন অস্ত্রোপচার করা হবে।

চিকৎসকরা বলছেন, ‘এটা হবে অনেক বড় ধরনের অস্ত্রোপচার। অস্ত্রোপচারে অন্তত সাত থেকে আট ঘণ্টা সময় ব্যয় হবে। এ সময়ে স্তন থেকে অনেক রক্ত ক্ষরণ হবে। সেজন্য অন্তত পাঁচ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হতে পারে। বীথির রক্তের গ্রুপ বি নেগেটিভ। সচরাচর এই গ্রুপের রক্ত পাওয়া যায় না। তাই আগে থেকেই রক্ত সংগ্রহের চেষ্টা করা দরকার।’

বীথির বাবা আবদুর রাজ্জাক জানান, চিকিৎসকরা ২০ জুন বীথির স্তনে অস্ত্রোপচার করার কথা জানিয়েছেন। তখন ৫ ব্যাগ রক্ত লাগবে। রক্ত সংগ্রহ করতে বলেছেন। তাই তিনি রক্ত সংগ্রহের চেষ্টা করছেন। রক্ত সংগ্রহ নিয়ে তিনি খুবই দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

তিনি জানান, একটা দুশ্চিন্তা যাওয়ার পর আরেকটা দুশ্চিন্তা চলে আসে। অপারেশন সংশ্রিষ্ট খরচের টাকা নিয়ে দুচিন্তায় ছিলেন। তখন অনলাইন নিউজ পোর্টাল বীথিকে নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর ওয়ালটন গ্রুপ দুই লাখ টাকা দিয়ে সহযোগিতা করেন।

তিনি বলেন, ‘সেই দুশ্চিন্তা শেষ হওয়ার পর এখন আবার রক্ত সংগ্রহের চিন্তা। কে দেবে রক্ত, কোথায় পাবো? অপারেশন সংশ্লিষ্ট যে টাকার প্রয়োজন ছিল তা আমার কাছে আছে। রক্ত কিনতে পাওয়া গেলেও কিনতাম। অপারেশন সংশ্লিষ্ট খরচের জন্য ওয়ালটন গ্রুপের দেওয়া দুই লাখ টাকার কিছু টাকা দিয়ে রক্ত কিনে নিতাম।’

বীথিকে কেউ রক্ত দিয়ে সহযোগিতা করতে চাইলে ০১৭১০-৫২১৪৭৯ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করেন তিনি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের প্রধান প্রফেসর ইকবাল মাহমুদ চৌধুরি বলেন, ‘অনেক বড় অপারেশন তো, অন্তত পাঁচ ব্যাগ রক্ত লাগবে।’

বীথির বাবা আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘বীথি জন্মের সময় থেকেই মুখে দাড়ি-গোঁফসহ শরীরে লোম ছিল। ১১ বছর বয়স থেকে স্তন অস্বাভাবিক আকারে বাড়তে থাকে। স্তনে জ্বালাপোড়া শুরু হয়। এর আগে সাত বছর বয়সে দাঁত পড়ে যায়। পরে আর সেই দাঁত গজায়নি।

গত ১৬ এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে এন্ডোক্রাইনোলজি (ডায়াবেটিস ও হরমোন) বিভাগের ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে বীথিকে ভর্তি করা হয়। কিন্তু বীথির হরমোন জনিত কোনো সমস্যা পরীক্ষায় ধরা পড়েনি।

চিকিৎসকরা বলেছেন, বীথির একটা সমস্যা নয়। সমস্যা তিনটি। এ ধরনের রোগ এর আগে দেখা যায়নি। তিনটি সমস্যার জন্য আলাদাভাবে চিকিৎসা করা লাগবে। এ নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

গত ১০ মে ওয়ালটন গ্রুপ বীথির চিকিৎসার জন্য নগদ দুই লাখ টাকা দিয়ে সহযোগিতা করে।

গত ২৩ মে মুখের লোম অপসারণের জন্য মুখমণ্ডলে প্রথমবারের মত লেজার থেরাপি দেওয়া হয়েছে। চর্ম ও যৌনরোগ বিশেষজ্ঞ প্রফেসর ডা. এম ইউ কবীর চৌধুরী এই লেজার থেরাপি দেন। এরপর ২৫ মে সি ব্লকের ষষ্ট তলার সার্জারি বিভাগের ৬১৩ নম্বর ওয়ার্ডের ৫১ নং বেডে নেওয়া হয়।

টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার জয়ভোগ গ্রামের দিনমজুর আবদুর রাজ্জাকের তিন সন্তানের মধ্যে বীথি বড়। জয়ভোগ পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী সে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: