সর্বশেষ আপডেট : ৪৩ মিনিট ৪৭ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

ছিনতাইকারী ছেড়ে দেয়ায় জৈন্তাপুর থানা ঘেরাও

11জৈন্তাপুর প্রতিনিধি:
পুলিশে ধরিয়ে দেয়া ছিনতাইকারীকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগে জৈন্তাপুর মডেল থানায় হামলা চালিয়েছে পাঁচটি গ্রামের বিক্ষুব্ধ জনতা। গতকাল থানা কম্পাউন্ডে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। গেইটের বাইরে টায়ারে অগ্নিসংযোগ করে ঘটনার প্রতিবাদ জানানো হয়। থানার সম্মুখে দুপুর ১২টায় সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন তারা। এলাকাবাসীর অভিযোগ, ২ টি ধারালো চাপাতিসহ আটক করে গণধোলাই দিয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের হাতে তুলো দেয় স্থানীয়রা। কিন্তু পরে শোনা যায় পুলিশ হাত থেকে আসামি পালিয়ে গেছে। কিন্তু স্থানীয়দের ধারণা পুলিশ অর্থের বিনিময়ে ছিনতাইকারীকে ছেড়ে দিয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, এ বিষয়য়ে জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান এস.আই নাছির তার সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ করেন। এ অভিযোগে আশপাশের ৫ গ্রামের লোকজন সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ ও সহ অগ্নিসংযোগ করে বিক্ষোভ করেন। বিক্ষোভকারীরা জানান, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১ টায় গৌরী শংঙ্কর গ্রামের নিজাম উদ্দিনের ভাড়া ঘরে হামলা, একই রাত ৪টায় আব্দুস শুকুরের বসত ঘরে হামলাম চালায়, পরবর্তীতে ভোর রাত ৫টায় বদর টেইলারের ঘরে চাপাতিসহ হামলা চালায় পশ্চিম গৌরীশংকর গ্রামের আলতাফুর রহমান উরফে গোটা আলতাফের ছেলে জমির উদ্দিন (৩২)।

এসময় বাড়ির লোকজনের চিৎকারের শুনো গ্রামবাসী এগিয়ে আসে ২টি চাপাতি সহ জমিরকে আটক করে গণধোলাই দেয়। পরে ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী সম্রাটের সহযোগিতায় জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের কাছে জমিরকে চাপাতিসহ হস্তান্তর করা হয়। পুলিশ জমিরকে গ্রহণ করে চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে নিয়ে যায়। অবস্থা বেগতিক দেখে চিকিৎসার সিলেটে রেফার্ড করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় পুলিশের কাছ হতে জমির পালিয়ে যায়।

এনিয়ে এলাকায় ক্ষোভের সঞ্চার ঘটে এলাকাবাসী বলেন, পুলিশ জমিরকে ছেড়ে দিয়ে বলছে পালিয়ে গেছে। ফলে গ্রামবাসীর মধ্যে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। ২৮ মে সকালে বিষয়টি জানতে চাইলে জৈন্তাপুর মডেল থানার এস.আই নাছির উদ্দিন মোবাইল ফোনে নবনির্বাচিত নিজপাট ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী সম্রাটের সাথে অসৌজন্য মূলক আচরণ করেন। এঘটনায় তাৎক্ষনিক ভাবে ৫ পাঁচ গ্রামের পুরুষ মহিলা সহ জৈন্তাপুর মডেল থানা ঘেরাও করে এবং নাসিরের প্রত্যাহার এবং ছিনতাইকারী জমিরকে গ্রেপ্তারের দাবি জানান। এসময় এলাকাবাসীর পক্ষে জৈন্তাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের অন্যতম সদস্য নিজপাট ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আতাউর রহমান বাবুলসহ চেয়ারম্যান সম্রাট দেখা করলে তিনি এবিষয়ে কিছু না বলে অফিসার ইনচার্জ এর সাথে কথা বলার জন্য বলেন।

এতে এলাকাবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে থানার সম্মুখে দুপুর ১২টায় সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে এবং ট্রায়ারে অগ্নি সংযোগ করে বিক্ষোভ পালন করে। এলাকাবাসীর গণ্যমান্যদের চেষ্টায় বেলা ১টায় ২৪ঘন্টার মধ্যে এস.আই নাছিরকে জৈন্তাপুর মডেল থানা থেকে প্রত্যাহার এবং ছিনতাইকারী জমিরকে পুনরায় গ্রেফতার করার আহবান জানান। অন্যতায় ২৪ঘন্টা পর সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করার ঘোষণা দিলে গ্রামবাসীরা অবরোধ তুলে নেন। এদিকে এলাকাবাসীর গণস্বাক্ষরসহ একটি স্বারকলিপি পুলিশের কাছে দেওয়া হবে বলে জানান ইউপি সদস্য মনসুর আহমদ। এবিষয়ে নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান মঞ্জুর এলাহী সম্রাট জানান, তার রিরুদ্ধে অসংখ্যা অভিযোগ রয়েছে। ইতোপূর্বে এই ধরনের ঘটনার দায়ে গ্রামবাসী তাদেরকে এলাকা ছাড়া করে। বর্তমানে তারা গৌরীশংঙ্কর গ্রামে বাড়ি তৈরি করে বসবাস করে আসছে। সম্প্রতি তার কর্মকান্ড শুরু করে। ফলে এলাকাবাসী তাকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে দেয়।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: