সর্বশেষ আপডেট : ৮ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড আগে
বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

২৫ কেজি গাজা ও গাড়িসহ ১ মাদক ব্যবসায়ী আটক মাদক ও ব্যবসায়ীকে নিয়ে লুকুচুরি

b949d028-158b-4371-a867-fe4b4a498cbcহবিগঞ্জ সংবাদদাতা:: হবিগঞ্জ জেলায় সর্বত্র মাদক ব্যবসা জমজমাট হয়েছে উঠেছে। প্রতিদিনই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালিয়ে মাদক ব্যবসায়ীদেরকে গ্রেফতার করেও এ ব্যবসা বন্ধ করতে পারছেন না। কারণ তাদেরই কতিথ সোর্সরা এখন ব্যবসায় জড়িত। গতকাল সোমবার সাড়ে ৬টার সময় নতুন ব্রীজ পাম্পের কাছে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক শাহ আলমের পালিত কিছু সোর্স চুনারুঘাট থেকে বুল্লা ২৫ কেজি গাজা যাচ্ছে শুনে তারাই জেলা গোয়েন্দা পুলিশ সেজে মোঃ আব্দুল করিম নামে এক মাদকে সিএনজি সহ আটক করে।
সরজমিনে গিয়ে জনতার কাছ থেকে জানা যায় যে আটকৃত ব্যবসায়ী  সত্য ঘটনা হল হক পেট্রোল পাম্প এলাকা থেকে নাম ধারী ৪/৫জন কথিত সোর্স জেলা গোয়েন্দা পুলিশ সেজে সিএনজি অটোরিক্সাসহ মাদক ব্যবসায়ী ওয়াসির ওরফে আব্দুল করিম (৩০) নামে এক ব্যক্তি কে আটক করে। এসময় সিএনজি অটোরিক্সা হবিগঞ্জ (থ-১১-৪০৯৮) ভিতর থেকে ২৫ কেজি গাজা উদ্ধার করা হয়। যার বর্তমান মূল্য আড়াই ল টাকা। গাড়ি থেকে অপর দুই মাদক ব্যবসায়ী পালিয়ে গেছে। আটক করিম চুনারুঘাট উপজেলার চান্দুনা গ্রামের ইমান আলীর পুত্র।
এদিকে এদিকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের কাছে ১টি ফোন আসে যে তারা কি মাদক ধরেছে। এ রকম খবর শুনে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ হতবাগ হয়ে যায়। এবং সাথে সাথে তারা মাঠে নামে যে কারা তাদেও নাম দিয়ে মাদক ধরছে আর ব্যবসা করছে। পরে ৮টার দিকে আটক করতে গিয়ে দেখা যায় রক ই বক হয়ে কজ করছেন।

এব্যপারে গোয়েন্দা পুলিশের এস আই সুদ্বিপ রায় জানান যে, অনেক দিন ধরে এই রকম কাছে কিছু লোক তাদেও নাম দিয়ে মাদক ব্যবসা করছে। এবং মাদক ব্যবসায়ীদেও কাছ থেকে মোটা অংকের টাকাও হাতিয়ে নিয়ে ব্যবসায়ীদেও ছেড়ে দেয় এবং মাদক গুলো রেখে দেয়।
তিনি আরো বলেন যে, খবর পাওয়ার সাথেসাথে তারা এস আই সুদ্বিপ রায়ের নেতৃত্বে একদল হবিগঞ্জ-শায়েস্থাগঞ্জ ও হবিগঞ্জ-নছরতপুর বাইপাস সড়কে অবস্থান নেয়। তিনি আরো বলেন, তারা যখন ২টি সিএনজি পাইকপাড়া বাইপাস সড়কের কবির কলেজের সমনে আটক কওে তখন আমরা হতবাক হয়ে গেলাম। ১টি সিএনজিতে ছিল রাজু মিয়া, মাদক ব্যবসায়ী রাজুর পুত্র রুবেল আর আব্দুল করিম এবং সিএনজি ড্রইভার বড় বহুলা গ্রামের আওয়াল নামের লোকদের দেখি আর আরেকটি সিএনজিতে ছিলেন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক শাহ আলম। তখন ডিবি পুলিশ জিজ্জসাবাদ করতে এগিয়ে গেলে রাজুর ছেলে রুবেল এবং সিএনজি ড্রইভার বড় বহুলা আওয়াল তাদেও দেখেই দোড়ে পালিয়ে যায়। তখন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক শাহ আলমকে জিজ্জাসা করলে তিনি বলেন যে উল্লেখিত লোক তার সোর্স হিসেবে কাজ করত তারা নতুন ব্রীজ এলাকায় আটক করে তাকে খবর দিলে তিনি ঘটনা স্থলে গিয়ে তাদেরকে নিয়ে আসছিলেন।

এব্যাপারে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক শাহ আলম জানান যে, তারা নতুন ব্রীজ এলাকা থেকে মাদকদ্রব্যও মাদক ব্যবসায়ীকে নিয়ে আসছিলেন। তখন হঠাৎ ডিবি পুলিশ তাদেও রাস্তা আটক কওে অজথাই জিজ্জাগাসাবাদ আরম্ব করে।
কিন্তু অবাক কান্ড হচ্ছে তিনি বলছেন যে, ঔলটো ডিবি পুলিশ নাকি তাদেরকে হয়রানী করছে। এবং জোর কওে পৌদ্দার বাড়ি বাজারের পাশে শত-শত জনতার সামনে তাদেরকে গাড়ি থেকে নামিয়ে জিজ্জাগাসা করা শুরো করেন।
তখন উপস্থিত সংবাদ কর্মীরা এস আই সুদ্বিপ এবং শাহ আলমকে আসল ঘটনা জানতে চাইলে এস আই সুদ্বিপ বলেন মাদক নিয়ন্ত্রণ এর ফোর্স নাই শাহ আলম সাহেবের পোশাকও নাই তিনি ১ সিএনজিতে আর আসামী অন্য গাড়িতে কেন কিভাবে একজন দ্বায়ীত্বশীল কর্মকর্তা এই কাজ করেন।

পড়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিদর্শক শাহ আলম মাদক এবং মাদক ব্যবসায়ীদেরকে নিয়ে তার অফিসে চলে আসেন।
তবে সবচেয়ে অবাক হবার ব্যপার হল যেঃ- মাদক সিস করেন পৌদ্দার বাড়ি এলাকার বাজারের সামনে শতশত মানুষের সামনে কিন্তু শাহ আলম সাহেব মামলার বিবরণে দেখন যে মাদক সিস করা হয়েছে হবিগঞ্জ-শায়েস্তাগঞ্জ সড়কের গরুও বাজার এর কাছে।
পড়ে সংশ্লিষ্ট বাদী হয়ে উল্লেখিতদের বিরুদ্ধে ১টি মাদক মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান শাহ-আলম সাহেব।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: