সর্বশেষ আপডেট : ১ ঘন্টা আগে
শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

জুড়ীকে বন্যাদুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি উপজেলা পরিষদের

ad3b89a7-fe33-4ad5-ac53-6222c09c5fa9বড়লেখা প্রতিনিধি ::
পাহাড়ি ঢলে বাঁধ ভেঙে মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার সাগরনাল, গোয়ালবাড়ি ও ফুলতলা ইউনিয়নের অন্তত ৫০টি গ্রাম প্লাবিত হয়ে প্রায় ২০ হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। ১ হাজার বাড়িঘর তিগ্রস্ত হয়েছে। পানিতে সড়ক তলিয়ে যাওয়ায় উপজেলা সদরের সঙ্গে সাগরনাল, গোয়ালবাড়ি ও ফুলতলা ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সিলেট বনবিভাগের অন্তর্গত জুড়ী রেঞ্জ-১ এর আওতাধীন ধলাইছড়া বাঁশমহালের ২৬টি হান্ডর ভেঙ্গে যাওয়ায় এবং দেড় লাখ বাঁশ নষ্ট হওয়ায় প্রায় তিন কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হন ধলাইছড়া বাঁশমহালের ইজারাদাররা। জুড়ী নদীর প্রতিরা বাঁধের ২০টি স্থান ভেঙে যাওয়ায় নতুন করে উপজেলার প্রায় ৬০০ পরিবারের বসতঘরে পানি প্রবেশ করেছে। অনেকের বাড়িতে কোমরপানি আবার কারও বাড়িতে বুকসমান পানি। কৃত্রিম বন্যায় ডুবে গেছে রাস্তাঘাট ও বিস্তীর্ণ এলাকা। বন্যাকবলিত অনেকে বাড়ি ছেড়ে চা বাগানের উঁচু টিলা ও আশপাশের উঁচু স্থানে আশ্রয় নিয়েছেন।
উপজেলা চেয়ারম্যান গুলশান আরা মিলি ও ভাইস চেয়ারম্যান কিশোর রায় চৌধুরী মণি জানান, বন্যাকবলিত বিভিন্ন এলাকা তাঁরা সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন। দুর্গত মানুষের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। সরকারের কাছে তাদের দাবি, অবিলম্বে জুড়ীকে বন্যাদুর্গত এলাকা ঘোষণা করা হউক।
এদিকে ভারী বর্ষণে বড়লেখা উপজেলায় অবস্থিত মাধবকু- জলপ্রপাতের ভেতরে টিলার মাটি ধ্বসে একটি পুলিশ চৌকি, একটি শিবমন্দির, পর্যটকদেও বাসার জন্যে স্থাপিত একটি ছাউনি এবং জলপ্রপাতে প্রবেশের পাকা সড়কের কিছু অংশ ভেঙ্গে গেছে।

এ বিভাগের অন্যান্য খবর

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: