সর্বশেষ আপডেট : ২ ঘন্টা আগে
মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

অপহরণ না আত্মগোপন

nipa-maasranga-tv-lrg20160517163458নিউজ ডেস্ক::
এই প্রথম নয়। আগেও আত্মগোপনে ছিলেন বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল মাছরাঙার সংবাদ উপস্থাপিকা নিপা আফরোজ। কয়েকদিন আত্মগোপনে থাকার পর ফোন দিয়ে খালাকে জানিয়েছিলেন তিনি বিয়ে করেছেন। মঙ্গলবার থেকে ফের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না নিপাকে। দীর্ঘদিন থেকে তার তৃতীয় স্বামীর সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলছিল। কদিন আগে সেই স্বামী ডিভোর্স লেটারও পাঠিয়েছেন। এ অবস্থায় তার এই নিখোঁজ নানা রহস্যের জন্ম দিয়েছে। খোদ তার খালা বলেছেন, নিপার কথা মুখে আনতে চাই না। সে আমাদের মান-সম্মান নষ্ট করেছে। অন্যদিকে নিপা অপহরণ হয়েছেন নাকি স্বামীকে বিপাকে ফেলতে এটি করেছে এ নিয়ে সন্দেহ স্বজনদের মধ্যে। নতুন কারও সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়ে এ ঘটনা ঘটিয়েছে কিনা সে বিষয়টিও উড়িয়ে দিচ্ছেন না তারা।

নিখোঁজের দুই দিন অতিবাহিত হলেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছেন, নিপা আফরোজ সম্পর্কে তেমন কোনো তথ্য দিতে পারেননি কেউ। তার কোনো স্বজনদের পাচ্ছে না পুলিশ। আদৌ নিপা অপহরণ হয়েছেন কি-না এ বিষয়ে সন্দেহ রয়েছে পুলিশের। নিখোঁজের বিষয়ে উল্লেখ করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন নিপার বান্ধবীর স্বামী কাজী রাকিব উদ্দিন আহমেদ। লালমাটিয়ার বি ব্লকের ২/৩ নম্বর বাড়িতে থাকেন তিনি। কাজী রাকিব উদ্দিন জানান, স্বামী রহুল আমিনের সঙ্গে সম্পর্ক খারাপ ছিল। মামলা করেছিলেন নিপা। নিখোঁজ হওয়ার আগে কাজী রাকিবের স্ত্রীকে রাত ৯টা ৩৮ মিনিটে ফোনে নিপা জানান, তাকে একটি গাড়ি অনুসরণ করছে তারপর থেকেই ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায় তার। তবে বিষয়টি অপহরণ কি-না এ বিষয়ে নিশ্চিত নন কাজী রাকিব উদ্দিন। তিনি বলেন, নিপার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। এখন তাকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব পুলিশের।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ূন কবির জানান, নিপা যে টেলিভিশনে সংবাদ পাঠিকা হিসেবে কাজ করতেন সেখানে তার আটটি মোবাইলফোন নম্বর দেয়া আছে। এর সবকটি নম্বর বন্ধ রয়েছে। ইতিমধ্যে নিপার নিকেতনের বাসার গৃহপরিচারিকা মনোয়ারাসহ আশপাশের লোকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তারা নিপা সম্পর্কে তেমন কোনো তথ্য দিতে পারেননি। তবে দেড় মাস ধরে স্বামী রহুল আমিনের সঙ্গে দ্বন্দ্ব চলছে নিপার। স্বামীর সঙ্গে দ্বন্দ্বের পর থেকে নিকেতনের বাসায় নিপা একাই থাকতেন। বিষয়টি থানা পুলিশ থেকে আদালত পর্যন্ত গড়িয়েছে। এসআই হুমায়ূন কবির বলেন, মামলা করার পর নিপার স্বামী রহুল আমিন উচ্চ আদালত থেকে জামিনে আছেন। কিছু দিন আগে নিপাকে ডিভোর্স লেটার পাঠিয়েছেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, তুলনামূলকভাবে স্বামী রহুল আমিন নিপার চেয়ে বেশি বয়সের। বিভিন্ন ব্যবসায়ীর সঙ্গে নিপার রয়েছে বন্ধুত্ব। এসব কারণে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এ ছাড়ও স্বামীর অর্থ-সম্পত্তি নিজের নামে নেয়ার আগ্রহ ছিল তার। এসব নিয়েও দুজনের মধ্যে কলহের সূত্রপাত। বিষয়টি চূড়ান্ত রূপ ধারণ করে গত ২৬শে এপ্রিল। ওই দিন যৌতুক ও নির্যাতনের অভিযোগে স্বামী রহুল আমিনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা করেন নিপা। পরে মামলাটি তেজগাঁও ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে হস্তান্তর করা হয়েছে। মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার আসমা সিদ্দিকা মিলি জানান, গত ৫ই জানুয়ারি রহুল আমিনের সঙ্গে বিয়ে হয় নিপার। মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে বিয়ের কিছু দিন পর থেকে যৌতুকের জন্য তাকে মারধর করা হতো। মামলাটি এখনও তদন্তাধীন। সূত্রমতে, পরিচিত এক ব্যক্তির বাসায় পরিচয় হয়েছিল কুমিল্লার ব্যবসায়ী পঞ্চাশ বছর বয়সী রহুল আমিনের সঙ্গে। তারপর হুট করেই তাকে বিয়ে করেছিলেন নিপা। এর আগের সংসারে স্ত্রী, সন্তান রয়েছে রহুল আমিনের। এ অবস্থায় নিপাকে তিনি অপহরণ করেছেন নাকি তাকে বিপাকে ফেলতে নিপা নিজেই আত্মগোপনে আছেন বিষয়টি তদন্ত করছে পুলিশ।

নিপার স্বজনদের খোঁজ করতে গিয়ে জানা গেছে, রাজধানীর মিরপুরে তার মা রয়েছেন। মা-বাবার মধ্যে বিচ্ছেদ হওয়ার পর তাদের সঙ্গে যোগাযোগ নেই নিপার। মায়ের দ্বিতীয় বিয়ের পর ১০-১২ বছর আগে জয়পুরহাট থেকে ঢাকায় এসে খালার বাসায় উঠেছিলেন তিনি। ঢাকায় এসে চাকরি নিয়েছিলেন একটি ফ্যাশন হাউজে। নায়িকা বা মডেল হওয়ার স্বপ্ন ছিল নিপার। স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য নানা জনের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি। গতকাল দুপুরে তেজগাঁওয়ের ফার্মগেট এলাকায় তার খালার বাসায় গেলে এ বিষয়ে কথা হয় তাদের সঙ্গে। নিপার খালা বলেন, ওই মেয়ে পুরাই নষ্ট হয়ে গেছে। আমি ওর পরিচয় দিতে চাই না। আমাদের মান-সম্মান আছে। তাকে নিয়ে আমরা বিব্রত।

তিনি জানান, এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে জয়পুরহাট থেকে তার বাসায় এসেছিলেন নিপা। তখন নায়িকা হওয়ার জন্য নানা জায়গায় ছুটে বেড়াতেন। রাত করে বাসায় ফিরতেন। এর মধ্যে হঠাৎ নিখোঁজ হয়ে যান। কোথাও খুঁজে পাওয়া যায় না তাকে। কয়েক দিন পর ফোনে জানান, তিনি বিয়ে করেছেন। প্রথমে দিপু নামে একজনকে বিয়ে করেন। মিডিয়ায় কাজ করার কারণে অনেকের সঙ্গে পরিচয় হয় নিপার। তার অনেক বন্ধু। এসব কারণে ওই সংসার বেশি দিন টিকেনি।
নিপার খালা জানান, পরে বিয়ে করে একটি টেলিভিশনের প্রযোজককে। দেড় বছর আগে ওই প্রযোজকের সঙ্গে বিচ্ছেদ ঘটে তার। শেষ পর্যন্ত রহুল আমিন নামে একজনকে বিয়ে করেছেন বলে শুনেছি। কিন্তু ওই বিয়ে, বর ও বিচ্ছেদ সম্পর্কে কিছুই জানেন না তিনি। সিএ অধ্যয়নরত নিপার খালাতো বোন জানান, নিপা ও তার মা-বাবার সঙ্গে কোনো যোগযোগ নেই তাদের। যে কারণে তার নিখোঁজের বিষয়ে স্বজনদের কেউ জিডি করেনি। যিনি জিডি করেছেন তাকে চিনেন না তারা।

নিপা নিখোঁজ হওয়া প্রসঙ্গে তার খালা বলেন, নিপা কি সত্যি নিখোঁজ হয়েছে। নাকি নিজে আত্মগোপনে আছে? তার আগেও একবার নিখোঁজ হয়েছিল। পরে জানিয়েছিল সে বিয়ে করেছে। তাই এ নিয়ে সন্দেহ আছে তাদের। তবু বিষয়টি সঠিকভাবে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন নিপার খালা।মানবজমিন

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: