সর্বশেষ আপডেট : ৩ ঘন্টা আগে
রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

টিভি উপস্থাপিকা নিপা নিখোঁজ: সাবেক স্বামীকে খুঁজছে পুলিশ

41161নিউজ ডেস্ক: বেসরকারি টেলিভিশন মাছরাঙা’র উপস্থাপিকা সাবিনা আক্তার নিপার তিন দিনেও খোঁজ মিলেনি। গত বুধবার রাতে নিপাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না মর্মে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়। জিডিতে নিপার নিখোঁজের ঘটনায় সাবেক (দ্বিতীয়) স্বামীর রুহুল আমিনকে অভিযুক্ত করা হয়।

এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে নিপাকে অপহরণ করা হয়েছে দাবি করেন নিপার নিকট আত্মীয় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন। তিনি জানান, মোবাইল ফোনে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগে গুলশান থানায় জিডি করে ফেরার পথে রাত সাড়ে ৯টার দিকে রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল আড়ং এলাকা থেকে নিপা নিখোঁজ হন। এরপর একাধিকবার ফোন করেও তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।

পরিবার সুত্রে জানাযায়, নিখোঁজ হওয়ার পর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি নং ৯৪৫) করা হয়। নিপাকে অপহরণ করা হয়ে থাকতে পারে এবং এ বিষয়ে তার (নিপা) সাবেক স্বামীর কোনো হাত থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করা হয়। এ বিষয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবদুর রশিদ জানান, বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা ও তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হুমায়ূন কবির বলেন, গত বুধবার ভোর রাতে নিপার বান্ধবী রাজিয়া সুলতানার স্বামী রাকিব উদ্দিন আহমেদ থানায় এসে সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

রাকিব উদ্দিন আহমেদ জানান, গত বুধবার রাত ৯টা ১৮ মিনিটে নিপার সঙ্গে রাজিয়ার মোবাইল ফোনে কথা হয়েছিল। নিপা রাজিয়াকে অভিযোগ করেছিলেন যে তার দ্বিতীয় (সাবেক) স্বামী রুহুল আমিন তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন। এর কিছুক্ষণ পরই নিপার মোবাইল ফোন বন্ধ হয়ে যায় এবং তার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি। জানাযায়, মাস খানেক আগে থেকে নিপার দ্বিতীয় (সাবেক) স্বামী রুহুল আমিনের সঙ্গে তার বিরোধ চলছিল।

নিপা স্বামীর বিরুদ্ধে নারী নির্যাতন দমন আইনে মামলা করলে রুহুলকে কারাগারেও যেতে হয়। জামিনে বেড়িয়ে রুহুল নিপাকে মোবাইল ফোনে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। এ জন্য গুলশান থানায় নিপা নিজে গত মঙ্গলবার রাতে জিডি করেন। ফেরার পথেই সে নিখোঁজ হন। গুলশান থানা পুলিশ জানান, দ্বিতীয় স্বামী রুহুল আমীনের বিরুদ্ধে গত ২৬ এপ্রিল যৌতুকের মামলা হয়। সেই মামলা এখন ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার থেকে তদারকি করা হচ্ছে।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: