সর্বশেষ আপডেট : ৬ মিনিট ৩৬ সেকেন্ড আগে
শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬, খ্রীষ্টাব্দ | ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩ বঙ্গাব্দ |

DAILYSYLHET

রাইফেল হাতে মাথা নিচু করে দাঁড়িয়েছিলেন আনিস

anis-police-shahbag-lrg20160517171308নিউজ ডেস্ক::
রাইফেল হাতে মাথা নিচু করে দাঁড়িয়েছিলেন আনিস (ছদ্মনাম)। রাজারবাগ পুলিশ লাইনের রিজার্ভ ফোর্সে কনস্টেবল পদে চাকরি করছেন। কুড়িগ্রামের চিলমারীর আনিস মাত্র সাত মাস আগে পুলিশের চাকরিতে যোগদান করেছেন।

জাতীয় জাদুঘরের গেটের সামনে যখন আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়ুয়া আবেগতাড়িত কণ্ঠে বলছিলেন, ‘আমার বাবাও একজন শিক্ষক। যখন নারায়ণগঞ্জের সেই প্রধান শিক্ষককে একজন আইন প্রণেতার সামনে কানে ধরে উঠবস করানো ও ক্ষমা চাওয়ানো হচ্ছিল তখন মনে হচ্ছিল কেউ যেন আমার বাবাকেই কান ধরে উঠাচ্ছে বসাচ্ছে’।

তখন রাইফেল হাতে মাথা নিচু করে আনিসকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। মঙ্গলবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জের কদমপুর স্কুলের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তিকে পিটিয়ে ও কান ধরিয়ে উঠ-বস করানোর প্রতিবাদে লেখক-শিল্পী-শিক্ষক-সাংস্কৃতিক কর্মীদের আয়োজনে প্রতিবাদ সমাবেশস্থলের ঠিক পেছনেই আনিসসহ কয়েকজন দাঁড়িয়ে ডিউটি করছিলেন।

এ প্রতিবেদক তার পরিচয় দিয়ে প্রধান শিক্ষককে অপমানের বিষয়টিকে তিনি কীভাবে দেখছেন জানতে চাইলে প্রথমে আনিস সরাসরি কথা বলতে অস্বীকৃতি জানিয়ে বলেন, আপনি আপনার দায়িত্ব পালন করছেন, করেন, আমি সরকারি ডিউটিতে আছি, কিছুই বলতে পারবো না।
পাশে দাঁড়িয়ে বেশ কিছুক্ষণ অপেক্ষার পর আনিস নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, মানুষ যতই খারাপ হোক না কেন শিক্ষকদের সবাই সম্মানের চোখে দেখে। এক সহকর্মীর মোবাইলে স্থানীয় সংসদ সদস্যের উপস্থিতিতে সেই প্রধান শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করা ও ক্ষমা চাওয়ার বিষয়টি শুধু তাকেই নয়, পুলিশ সদস্যদের অনেকেই আহত করেছে। আজকে এখানে উপস্থিত সবার বক্তৃতা শুনে মনটা আরো খারাপ হয়ে গেল বলে মন্তব্য করেন। শুধু আনিস নন, তার মতো অসংখ্য মানুষ আজ দায়বদ্ধতা থেকে শাহবাগে প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দিতে আসেন।

মঙ্গলবার বিকেলের সমাবেশে বিপুল সংখ্যক মানুষের সমাগম না হলেও স্বল্প সংখ্যক মানুষের চোখে মুখে ছিল তীব্র ক্ষোভ, ঘৃণা ও প্রতিবাদ মুখরতা। একজন আইন প্রণেতার সামনে এক স্কুলশিক্ষককে পেটানোর বিষয়টি গোটা জাতিকে অপমান করেছে বলে উপস্থিত সবাই মন্তব্য করেন।

প্রতিবাদ সমাবেশের উদ্যোক্তারা জানান, শাহবাগ থেকে প্রতিবাদের ঢেউ উঠতে শুরু করেছে। এ ঢেউ সারাদেশে বিদ্যুৎবেগে ছড়িয়ে যাবে। তরুণ প্রজন্ম শিক্ষকের অপমানের সঙ্গে জড়িতদের কঠোর শাস্তি দেখতে মুখিয়ে আছে। আগামী শনিবার একই স্থানে প্রতিবাদ সমাবেশ আহ্বান করা হয়। আন্দোলন ক্রমেই জোরালো হবে বলে জানান একাধিক উদ্যোক্তা।

নোটিশ : ডেইলি সিলেটে প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি -সম্পাদক

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত

২০১১-২০১৬

সম্পাদকমন্ডলীর সভাপতি : মকিস মনসুর আহমদ, প্রধান সম্পাদক : লিয়াকত শাহ ফরিদী
সম্পাদক ও প্রকাশক : কে এ রহিম, নির্বাহী সম্পাদক: মারুফ হাসান
কার্যালয়: ব্লু ওয়াটার শপিং সিটি, ৯ম তলা, জিন্দাবাজার, সিলেট-৩১০০
ফোন : ০৮২১-৭২৬ ৫২৭ (নিউজ), ০১৭১২ ৮৮ ৬৫ ০৩ (সম্পাদক)
ই-মেইল: dailysylhet@gmail.com

Developed by: